দীপঙ্কর নন্দী: শুক্রবার থেকেই রাজ্য সরকারের উদ্যোগে বিদ্যাসাগরের জন্ম দ্বিশতবর্ষ উৎসব শুরু হয়েছে। চলবে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। 
সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মেদিনীপুর যাচ্ছেন। মঙ্গলবার প্রশাসনিক বৈঠক করবেন। বুধবার  বীরসিংহ গ্রামে বিদ্যাসাগরের বাড়ি যাবেন। সেখানে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। সেখানে কিছু কর্মসূচীও ঘোষণা করতে পারে বলে খবর। জন্ম দ্বিশতবর্ষ উপলক্ষে ‘‌আমার গর্ব মমতা’‌ নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্যাসাগর ও বর্ণপরিচয় নিয়ে একটি প্রচার–‌ছবি দেওয়া হয়েছে। সেখানে লেখা, ‘‌ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মজয়ন্তীতে সশ্রদ্ধ চিত্তে স্মরণ করি এই মহান মনীষীকে। শিক্ষাক্ষেত্রে ও সমাজ সংস্কার আন্দোলনে ওনার অবদানকে স্মরণ রেখেই রাজ্যব্যাপী অনুষ্ঠান হচ্ছে। ‌ছাত্রদরদি অধ্যক্ষ 
ছিলেন তিনি। তাঁর স্নেহছায়ায় বেড়ে উঠেছিলেন 
ভবিষ্যতের বহু কৃতী সন্তান। সংস্কৃত কলেজের অধ্যক্ষ হয়ে তিনি ছাত্রদের জন্য ন্যূনতম বেতনে মহাবিদ্যালয়ে পড়ার সুবিধে করে দেন।’‌
বীরসিংহ গ্রাম সেজে উঠেছে। বিদ্যাসাগরের বাড়িও সাজানো হচ্ছে। অনুষ্ঠানে মেদিনীপুরের বিধায়ক, জেলা পরিষদের সদস্য, কাউন্সিলর ও গুরুত্বপূর্ণ নেতারা উপস্থিত থাকবেন। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে উৎসব উপলক্ষে একটি কমিটিও করা হয়েছে। এই কমিটি আগেও ছিল। দলের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি এই কমিটির চেয়ারম্যান। কলকাতার কয়েকটি অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী থাকবেন। বিভিন্ন জায়গায় চলছে, বিদ্যাসাগরের ওপর আলোচনা। বিদ্যাসাগরের মূর্তিতেও মালা দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি জানিয়েছেন, ‘‌বিদ্যাসাগরের বাড়িতে একটি মিউজিয়ামও করা হবে। এব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন।’‌ তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়ায় এই মনীষীর দীর্ঘ জীবনের যাবতীয় কাজ পোস্ট করা হচ্ছে।
দলের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন ব্লকে এই উপলক্ষে অনুষ্ঠান করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top