‌গৌতম চক্রবর্তী, সুন্দরবন: জোড়া বাঘের পাল্লায় পড়ল সুন্দরবনের মৎস্যজীবীর দল।‌ একটি বাঘ যখন এক মৎস্যজীবীকে মুখে করে তুলে নিয়ে যাচ্ছিল, তাঁকে উদ্ধার করতে পিছু নেন মৎস্যজীবীর সঙ্গীরা। তখনই তাঁরা দেখেন, অন্য একটি বাঘ তাঁদের নিশানা করছে। তাঁরা ভয়ে পিছু হটেন। ফলে বাঘের মুখ থেকে তাঁরা সঙ্গীকে বাঁচাতে পারেননি। বাঘে নিয়ে যাওয়া ওই মৎস্যজীবীর নাম সুশান্ত মণ্ডল (‌৫৬)‌।
ঘটনায় শোকের ছায়া সুন্দরবনের গোসাবার লাহি‌ড়ীপুরের চড়ঘেরি ও বিধানপল্লী এলাকায়। রবিবার সকালে এই দুই গ্রাম থেকেই সুশান্ত, শিবপদ বিশ্বাস, ধরণী মণ্ডল ও কমলা হাউলি— এই ৪ জনের একটি দল সুন্দরবনের ঝিলা জঙ্গলের বানতলা খালে গিয়েছিল কাঁকড়া শিকার করতে। তাঁরা কাঁকড়া ধরার তোড়জোড় শুরু করতেই, পেছন দিক থেকে একটি বাঘ আচমকা তাঁদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। নৌকো থেকে তুলে নিয়ে যায় সুশান্তকে। তঁার সঙ্গীরা বাঘটিকে ধাওয়া করেন। কিছুটা যেতেই অন্য একটি বাঘ তাঁদের নিশানা করে। তাঁরা দেখতে পেয়ে ভয়ে পিছু হটেন। নৌকোয় এলাকায় ফিরে সবাইকে বিষয়টি জানান। খবর পাওয়া মাত্র সুশান্তর সন্ধানে জঙ্গলে যান গ্রামবাসীরা। সুশান্তর বাঘের মুখে পড়ার খবর পেতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন পরিবারের লোকজন। বন দপ্তরের খবর, দলটি  বৈধ অনুমতিপত্র ছাড়াই সুন্দরবনের জঙ্গলে ঢুকেছিল কাঁকড়া ধরতে। অসমর্থিত সূত্রে খবর, ওই মৎস্যজীবীর মুণ্ডহীন দেহ দুপুরে উদ্ধার হয়েছে। যদিও খবরের সত্যতা জানা যায়নি।‌

জনপ্রিয়

Back To Top