সোহম সেনগুপ্ত
প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত না হয়েও আমফান–দুর্গতদের নামের তালিকায় বিজেপি কর্মীদের নাম থাকার অভিযোগকে ঘিরে উত্তেজনা দেগঙ্গায়। স্থানীয়দের দাবি, অবিলম্বে ওই বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত না হয়েও কীভাবে তাঁরা ক্ষতিপূরণের টাকা পেলেন তা তদন্ত করে দেখতে হবে।
বিতর্কিত ওই তালিকা প্রকাশ করে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি ও খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘‌দেগঙ্গা ব্লকে আমফান ক্ষতিপূরণ নিয়ে ব্যাপক দুর্নীতি করেছে বিজেপি। শুধু দেগঙ্গার হাদিপুর এলাকাতেই ১২ বিজেপি কর্মী ২০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণের টাকা পেয়েছেন। যাঁরা আদতে ক্ষতিগ্রস্ত নন। দেগঙ্গার অম্বিকানগর ও দেবালয় এলাকাতেও অন্যায়ভাবে ক্ষতিপূরণের টাকা আত্মসাৎ করেছেন বিজেপি কর্মীরা। বাগদা ব্লকেও বিজেপি একইভাবে ব্যাপক দুর্নীতি করেছে।’‌
যদিও বিজেপি–র বারাসত জেলার সভাপতি শঙ্কর চ্যাটার্জি জানান, এই দুর্নীতির সঙ্গে তাঁদের দলের কেউ যুক্ত নন। অভিযোগ প্রমাণ হলে দল তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। যদিও শঙ্করবাবুর দাবি মানতে নারাজ স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের দাবি, ভুয়ো তথ্য দিয়ে ওই বিজেপি কর্মীরা আমফান ক্ষতিগ্রস্ত হিসেবে টাকা আত্মসাৎ করেছেন।‌

জনপ্রিয়

Back To Top