প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়
‘মমতার মমতা’য় মানুষকে মাত্র ২০ টাকায় পেটপুরে মাংস–‌ভাত খাওয়াতে শুরু করল তৃণমূল। মহালয়া ও বিশ্বকর্মার পুজোর দিন দুপুর থেকে হাওড়ার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের নেতা–‌কর্মীরা উদ্যোগ শুরু করেন। এলাকার তৃণমূল নেতা বাপি মান্নার পরিকল্পনায় এলাকার মানুষকে মধ্যাহ্নভোজ করানোর এই উদ্যোগ নেওয়া হয়। এখন থেকে প্রতিদিনই তৃণমূলের উদ্যোগে দুপুরে এই খাওয়ানোর ব্যবস্থা চালু থাকবে।  প্রতিদিন ২৫০–‌৩০০ জনের খাওয়ানোর ব্যবস্থা থাকবে। এর জন্য রান্না–‌সহ সমস্ত আয়োজন করছেন স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরাই। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের পার্টি অফিসে ভোর থেকেই চলে রান্নাবান্নার কাজ। তবে বসে খাওয়ানো নয় সবাইকেই প্যাকেট করে খাবার দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। মধ্যাহ্নভোজের এই সুলভ ঠিকানায় আমিষ ভাত দেওয়া হবে সপ্তাহে ৪ দিন। মাছ দু’‌দিন আর মাংস ও ডিম একদিন করে থাকবে। আমিষ থালির দাম ২০ টাকা। সপ্তাহে তিনদিন থাকবে নিরামিষ ভাত। মূল্য ১৫ টাকা। নিরামিষ থালিতে থাকছে ভাত, ডাল, ভাজা ও তরকারি। মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার থাকবে নিরামিষ থালি। আর সোমবার, বুধবার, শুক্রবার ও রবিবার হবে আমিষ থালি। এর মধ্যে রবিবার হবে মাংস। সোমবার হবে ডিম। আর বুধবার ও শুক্রবার থাকবে মাছ।  প্রথমদিন ১৫০ জন খেয়েছেন। বাপি মান্না বললেন, এলাকায় দিন আনা দিন খাওয়া প্রচুর গরিব মানুষ আছেন। অনেককে বেশি টাকা দিয়ে হোটেলে খেতে হয়। তার ওপর বাজার অগ্নিমূল্য হওয়ায় অনেকেই সমস্যায় পড়ছেন। তাদের কিছুটা সুরাহা করতেই আমরা স্বল্প মূল্যে মধ্যাহ্নভোজনের ব্যবস্থা করেছি। এলাকার যে–‌কোনও সাধারণ মানুষই এখান থেকে খাবার নিতে পারবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top