আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মন্ত্রিত্ব ছাড়লেও এখনও দলেই আছেন শুভেন্দু। আলাপ–আলোচনার সম্ভাবনা রয়েছে ভবিষ্যতে, জানালেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। 
শুক্রবার দুপুরে রাজ্য মন্ত্রীসভার পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। রাজ্যের পরিবহন, সেচ এবং জনসম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী ছিলেন। ইস্তফা পত্রে লেখেন, ‘‌আমি মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করছি। দ্রুত এই পদত্যাগপত্র গ্রহণ করার বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হোক। আমি ই-মেল করে রাজ্যপালকেও পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছি। যাতে তিনি তাঁর দিক থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারেন। আপনাকে ধন্যবাদ, রাজ্যের মানুষের সেবা করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। যথাসাধ্য দায়বদ্ধতা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে মানুষের সেবা করার চেষ্টা করেছি।’‌
‘‌বিক্ষুব্ধ’ শুভেন্দুর সাম্প্রতিক কার্যকলাপে দলের অস্বস্তি বাড়ছিল। আর তারপরেই সমস্যা মেটাতে সৌগত রায়কে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল দলের তরফে। সম্প্রতি উত্তর কলকাতার একটি বাড়িতে তৃণমূল সাংসদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ রুদ্ধদার বৈঠকও করেন শুভেন্দু। সূত্রের খবর, রফাসূত্র মেলেনি। তারপরই মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন তিনি। 
শুভেন্দুর ইস্তফা পত্র নিয়ে রাজনৈতিক মহলে হইচই শুরু হওয়ার পর সৌগত রায় জানান, ‌শুভেন্দু এখনও বিধায়ক পদ ছাড়েননি, প্রাথমিক সদস্যপদও ছাড়েননি। যতক্ষণ এই পরিস্থিতি চলছে , ততক্ষণ আশা আছে। তিনি তাঁকে তৃণমূলে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাবেন, সেটাই দলের নির্দেশ। ২ বার বৈঠক করেছেন, শুভেন্দুর কথা তাঁর ইতিবাচক লেগেছে। প্রয়োজনে আরও কথা বলতে রাজি আছেন তিনি, বলেছেন সৌগত। যতদিন শুভেন্দু দলে আছেন, ততদিন তিনি চেষ্টা চালিয়ে যাবেন। যদি দল ছাড়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত শুভেন্দু নিয়ে ফেলেন, তাহলে সেখানেই আলোচনা শেষ, জানিয়েছেন বর্ষীয়ান সাংসদ। শুভেন্দুর পরিবার সূত্রে খবর, অনেক পদে আছেন তিনি। ব্যক্তিগত আক্রমণ চলছে তাঁর বিরুদ্ধে। তাই এমন সিদ্ধান্ত।      ‌
  

জনপ্রিয়

Back To Top