মিল্টন সেন, হুগলি: করোনা মোকাবিলায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে কোভিড ড্যাশবোর্ড। প্রতি মুহূর্তে জেলার চার মহকুমার তথ্য জোগাবে এই ড্যাশর্বোড। আঙুলের ছোঁয়ায় ড্যাশবোর্ডে ভেসে উঠবে সমগ্র জেলার পূর্ণাঙ্গ ম্যাপ। করোনা আক্রান্তদের বিস্তারিত তথ্য মিলবে এক নিমেষে। কতজনের লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বা আক্রান্তদের মধ্যে কতজন উপসর্গহীন তাও বলবে এই ড্যাশবোর্ড। জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর রাও জানিয়েছেন, মঙ্গলবার থেকে এই ড্যাশবোর্ডকে আনুষ্ঠানিক ভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে। পাশাপাশি জেলার জনবহুল এলাকাগুলির দিকেও বিশেষ নজর 
দেওয়া হয়েছে। 
জেলাশাসক জানিয়েছেন, জেলা জুড়ে র‌্যাপিড টেস্ট শুরু হয়েছে। বর্তমানে প্রতি ১০০ টেস্ট করার পর গড়ে মাত্র পাঁচ জনের শরীরে সংক্রমণ মিলছে। অর্থাৎ ৯৫ শতাংশ মানুষ সংক্রমণ মুক্ত। মৃত্যুর হার পাঁচ শতাংশ। তবে এই তথ্য শুধু শহরাঞ্চলের। গ্রামাঞ্চলে অধিকাংশ এলাকা এখনও করোনা প্রকোপ মুক্ত। র‌্যাপিড টেস্টের পাশাপাশি সংক্রমিত এলাকায় লকডাউন এবং সচেতনতার প্রচার চলছে। ফলে, পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। 
গত ৯ জুলাই জেলার মোট ২১টি কন্টেনমেন্ট জোনে লকডাউন শুরু হয়েছিল। তার মধ্যে ১৪টি জোন আপাতত সংক্রমণ মুক্ত। তাই সেই এলাকাগুলো থেকে লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে। নতুন করে আরও ২০টি এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই মানুষের ভিড় এড়াতে চন্দননগর স্ট্যান্ড সংলগ্ন গোটা এলাকাকে কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষণা করা হয়েছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top