আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পার্লারে গিয়ে এ যেন একেবারে অন্য রানু!‌ পায়ের নখ থেকে মাথার চুল পর্যন্ত। চেনা যাচ্ছে না তাঁকে। হয়ত এমন দিন যে আসবে রানু নিজেও কোনওদিন কল্পনা করেননি!‌ নতুন শাড়ি পরবেন, একেবারে অন্য সাজে আয়নায় নিজেকে দেখবেন, না সবকিছুই কল্পনাতীত। 
এতদিন রানাঘাট স্টেশনে বসেই গান গেয়েই সামান্য রোজগার হত তাঁর।  কিন্তু সেই গানই যে তাঁকে রাতারাতি জনপ্রিয় করে তুলবে তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি রানু মারিয়া মণ্ডল। বহুদিন স্নান করেননি তিনি। মাথায় সাদা পাকা চুল। দীর্ঘদিনের অযত্ন তাঁর শরীরে ভীষণ স্পষ্ট ছিল। আর এখন তিনি সোশ্যাল মিডিয়া সেলিব্রিটি। তাঁর গানের ভিডিও কয়েক লক্ষ লোক ইতিমধ্যে দেখে ফেলেছেন।
একটা শব্দও ভোলেননি তিনি গানের। অথচ কোনও দিন গানও শেখেননি। অনায়াসে গেয়ে ফেলতে পারেন ‘‌হিরা কি তামান্না হ্যায় কে পান্না মুঝে মিল যায়ে’‌–র মতো হাজার একটা লতার গাওয়া গান। বছর পঞ্চান্নর রানুদেবীর গানের গলার সঙ্গে অনেকেই লতা মঙ্গেশকরের মিল খুঁজে পেয়েছেন। এতদিন স্টেশনে বসে গান গাইলে খুশি হয়ে তাঁর হাতে দু’‌ চার টাকা তুলে দিতেন কেউ কেউ। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর গান ভাইরাল হওয়ার পরে রানুদেবীর ভাঙাচোড়া বাড়িতেই হাজির হচ্ছেন অনেকে। শুধু তাই নয়, যে মেয়েদের মুখ বহুদিন তিনি দেখেননি, আজ তাঁরাও আবার ফিরে এসেছেন। এমনকি, মুম্বইয়ের একটি টেলিভিশন চ্যানেলও তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। এত আদর ও যত্ন পেয়ে রানু এখন সবচেয়ে খুশি। যেন ভিখারিনি কুড়িয়ে পেল মুক্তোর মালা। কার ভাগ্যে যে কখন কি হয় কে বলতে পারে!‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top