সাগরিকা দত্তচৌধুরি: বাংলার স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের ভূয়সী প্রশংসা করল কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের চিফ একজিকিউটিভ অফিসার ডা.‌ ইন্দু ভূষণ বলেন, পশ্চিমবঙ্গে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ভাল কাজ হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উদ্যোগে তৈরি স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প এখন খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।
হায়দরাবাদ অ্যাপোলো হাসপাতাল এন্টারপ্রাইজ লিমিটেডের পক্ষে শুক্রবার ও শনিবার, দু’‌দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন হল। অ্যাপোলো গোষ্ঠীর তরফে আন্তর্জাতিক রোগী সুরক্ষা সম্মেলন হয় শনিবার। সেখানে  ডা.‌ ইন্দু ভূষণ বলেন, কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ সরকার আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে যুক্ত হোক। তাহলে পশ্চিমবঙ্গই শুধু নয়, অন্যান্য রাজ্যের মানুষও উপকৃত হবেন। কারণ অসম, মিজোরাম, গুয়াহাটি, ত্রিপুরা–‌সহ উত্তর–‌পূর্ব অংশের বহু মানুষ বাংলায় আসেন চিকিৎসা করাতে। কেন্দ্রের প্রকল্পের সঙ্গে কাজ করলে তাঁদের উপকার হবে। আবার স্বাস্থ্যখাতে কেন্দ্রের থেকে পশ্চিমবঙ্গকে ৪০০ কোটি টাকা দেওয়া হবে। দুই প্রকল্পের অনেক মিলও রয়েছে। 
ইন্দু ভূষণ জানান, এখনও আয়ুষ প্রকল্পে দেশের ১৮ হাজার হাসপাতাল যুক্ত হয়েছে। চলতি বছরের মধ্যে ১ কোটি মানুষের কাছে প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। ‘‌আয়ুষ’‌ হাসপাতাল তৈরির লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। 
ন্যাশনাল অ্যাক্রিডিয়েশন বোর্ড ফর হাসপাতাল অ্যান্ড হেল্‌থ কেয়ার প্রোভাইডার্স (‌নভ)‌ স্বীকৃত হাসপাতালগুলিকে ১৫ শতাংশ ভাতা দেওয়া হয়। দেশের গ্রামাঞ্চলের হাসপাতালগুলিকে আরও ১০ শতাংশ বেশি দেওয়া হবে। কারণ, এই সব এলাকায় সহজে চিকিৎসক পাওয়া যায় না। স্বাস্থ্যক্ষেত্রে প্রযুক্তিকে কাজে লাগানো হচ্ছে। রোগীদের সমস্ত তথ্য নথিভুক্ত করে রাখা হচ্ছে। নথিভুক্ত করা তথ্য যাতে সুরক্ষিত থাকে, সেই বিষয়েও জোর দেওয়া হচ্ছে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধনে ছিলেন অ্যাপোলো হাসপাতাল গোষ্ঠীর জয়েন্ট ম্যানেজিং ডিরেক্টর সঙ্গীতা রেড্ডি, প্রেসিডেন্ট ও সিইও, জয়েন্ট কমিশনার অফ ইন্টারন্যাশনাল পলা উইলসন এবং নভের সিইও ডা.‌ হরিশ নাদকারনি।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top