তুফান মণ্ডল: লোকসভা ভোটের পর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি–তে যোগ দিয়ে খানাকুলের ৬–৭ জন নেতা। এখন তঁারা তৃণমূলে ফেরার অপেক্ষায় দিন গুণছেন। কারণ তঁারা এই ক’দিনেই বিজেপি–তে গিয়ে হঁাপিয়ে উঠেছেন। পুরনো দলে ফেরার জন্য তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে তঁারা আবেদন জানিয়েছেন বলেও জানা গেছে। তাই ওই নেতা–কর্মীদের তৃণমূলে ফেরা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। 
সূত্রের খবর, বাকিদের ফেরানোর ব্যাপারে দল সবুজ সঙ্কেত দিলেও একজন তৃণমূল নেতাকে ফেরানোর ব্যাপারে এখনও সবুজ সঙ্কেত মেলেনি রাজ্য নেতৃত্বের কাছ থেকে। কারণ খানাকুলের তৃণমূল নেতৃত্বের একটা বড় অংশ তঁাকে আর দলে ফেরাতে চাইছেন না। লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার কিছুদিন পরই দিল্লিতে গিয়ে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি–তে যোগ দিয়েছিলেন খানাকুল–১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সহ–সভাপতি নইমুল হক ওরফে রাঙা। এছাড়াও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি–তে চলে গিয়েছিলেন খানাকুল–১ নম্বর ব্লকের কিশোরপুর–২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সন্দীপ বর, রামমোহন–১ নম্বর পঞ্চায়েতের প্রধান সঞ্জয় দলুই, অরুণ্ডা পঞ্চায়েতের সদস্য স্বপন দোলুই, খানাকুল–১ নম্বর পঞ্চায়েতের সদস্য শেখ বাদশা–সহ বেশ কিছু নেতা–কর্মী। এই নেতা–কর্মীরা ভেবেছিলেন বিজেপি–তে যোগ দিলে তঁারা রাজনৈতিক সুবিধা পাবেন। 
কিন্তু বাস্তবে ঘটেছে উল্টোটাই। বিজেপি–তে যোগ দেওয়ার ফলে বিজেপি–র পুরনো নেতা–কর্মীরা তঁাদের দলে নেওয়ার তীব্র বিরোধিতা করেছেন। এ নিয়ে বিজেপি–র অন্দরেও তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এর ফলে বিজেপি–র আরামবাগ সাংগঠনিক জেলা নেতৃত্ব এই নেতা–কর্মীদের প্রকাশ্যে কোনও কর্মসূচিতে এখনও নিয়ে আসতে পারেননি। ফলে এই নেতা–কর্মীদের এখন রাজনৈতিক কর্মসূচিহীন ভাবে সময় কাটাতে হচ্ছে। যার ফলে তঁারা হঁাপিয়ে উঠেছেন। নিজেদের অন্দরমহলে তঁারা বলেছেন, বিজেপি–তে যোগ দেওয়া ঠিক হয়নি। আর তাই তঁারা পুরনো দল তৃণমূলে ফেরার জন্য রাজ্য নেতৃত্বের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। 
এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের হুগলি জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব জানান, খানাকুলে দলের যেসব নেতা–কর্মী দল ত্যাগ করে চলে গেছেন, তঁাদের একজনকে বাদে সকলকেই দলে ফেরানো হবে। তঁারা নিজেদের ভুল বুঝতে পেরেছেন। ওই একজনের ব্যাপারে এখনও রাজ্য নেতৃত্বের সবুজ সঙ্কেত মেলেনি। 
এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, খানাকুল বিধানসভা এলাকার দলের দায়িত্বে রয়েছেন খানাকুলের তৃণমূল নেতা মুন্সি নজিবুল করিম। নজিমুল করিম আবার নইমুল হককে দলে ফেরানোর ব্যাপারে তীব্র বিরোধী। তঁার বক্তব্য, ‘‌নইমুল হকের জন্য দলের অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে। তাই তঁাকে দলে ফিরিয়ে এনে নতুন করে ক্ষতি করতে দেওয়া যাবে না।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top