প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়- স্বামী–স্ত্রীর মধ্যে বচসার সময় বউমাকে বাঁচাতে গিয়ে নিজের ছেলেকে গুলি করল মা। সোমবার দুপুরে, গোলাবাড়ি থানা এলাকার ঘটনা। পুলিশ জানায়, গুলিবিদ্ধ ছেলের নাম মনোজ শর্মা (৩১)। গাড়িচালক মনোজ আশঙ্কাজনক অবস্থায় এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনায় তার মা রেণু শর্মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের বাড়ি থেকে দুটি বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৬ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেগুলি মনোজই নিয়ে এসে ঘরে রেখেছিল বলে মনে করছে পুলিশ। এদিন মনোজের সঙ্গে তার স্ত্রী বেবী শর্মার তুমুল ঝগড়া ও তর্কাতর্কি হচ্ছিল। তখন একটি রিভলভার হাতে নিয়ে মনোজ তার স্ত্রী বেবীর দিকে তাক করে ভয় দেখাতে থাকে। তখনই মনোজের মা রেণু আরেকটি রিভলভার নিয়ে ছেলের দিকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে দেয়। মনোজের পেটে গুলি লাগে। গুলির আওয়াজে ছুটে আসে আশপাশের লোকজন। রক্তাক্ত অবস্থায় মনোজকে প্রথমে হাওড়া জেলা হাসপাতালে, পরে সেখান থেকে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এই ঘটনায় মনোজের মাকে গ্রেপ্তার করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। কোথা থেকে, কী উদ্দেশ্যে ওই আগ্নেয়াস্ত্রগুলি মনোজদের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছিল, তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। মনোজের স্ত্রী বেবীকেও জিজ্ঞাসাবাদ করছেন তদন্তকারী পুলিশ অফিসাররা। মনোজের স্ত্রী বেবী পুলিশের কনস্টেবল। কয়েক বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। মনোজ প্রায়ই মত্ত অবস্থায় বাড়ি ফিরে স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তি করত বলে অভিযোগ। যে রিভলভার থেকে গুলি চালানো হয়, সেটি পুলিশের, নাকি বাইরে থেকে আনা হয়েছিল, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মনোজ স্ত্রীর দিকে আগ্নেয়াস্ত্র তাক করতেই তার মা রিভলভার কেড়ে নিয়ে বাধা দিতে গেলে, টানাটানির সময় গুলি ছিটকে মনোজের গায়ে লাগে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

গুলিতে জখম ছেলে মনোজ শর্মা। ডানদিকে ধৃত অভিযুক্ত মা রেণু শর্মা। ছবি:‌ কৌশিক কোলে‌

জনপ্রিয়

Back To Top