মিল্টন সেন,হুগলি: লাল শাড়ি পরে, ঘোমটা দিয়ে জগদ্ধাত্রী প্রতিমা বরণ করছেন ১১ জন মহিলা। মুহুর্মুহু উলু আর শঙ্খধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠছে ঠাকুরদালান সংলগ্ন এলাকা। এতে নতুনত্বের কিছু নেই। এটাই প্রচলিত নিয়ম। এটাই রীতি। তবে ভদ্রেশ্বর তেঁতুলতলায় জগদ্ধাত্রী পুজোর ছবিটা অন্যরকম। সম্পূর্ণ উল্টো। পুজোয় অংশ নিলেও, দশমীর দিন ঠাকুর বরণের সময় মেয়েরা এখানে থাকেন না। এখানে লাল শাড়ি পরে রীতিমতো ঘোমটা টেনে ঠাকুর বরণ করেন এলাকার পুরুষরাই। আর এই রীতি চলে আসছে বহু বছর ধরে।
রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের দেওয়ান দাতারাম সুরের মেয়ের বাড়ি ভদ্রেশ্বরের গৌরহাটিতে হত জগদ্ধাত্রীর আরাধনা। পরে নানা কারণে তাঁদের আর্থিক অবস্থা অনকূল না হওয়ায় সেই পুজো চলে আসে ভদ্রেশ্বর তেঁতুলতলায়। বাড়ির পুজো সর্বজনীন রূপ পায়। সে সময় বাড়ির মেয়েরা পর্দানসীন থাকতেন। কখনওই বাইরে বেরিয়ে পুজোয় অংশ নিতেন না। পুজো মিটলেও, সমস্যা দেখা দেয় প্রতিমা বরণ নিয়ে। সমাধানে এগিয়ে আসেন পুরুষরা। তখন, বিসর্জনের আগে পুরুষরাই শাড়ি পরে বরণ করা শুরু করেন। সেই প্রথা আজও মেনে চলেছে তেঁতুলতলা বারোয়ারি। সভাপতি কল্যাণ মিত্র জানান, বারোয়ারির সদস্য ১১ জন পুরুষ। তাঁরাই পুরনো রীতি মেনে লাল শাড়ি পরে প্রতিমা বরণ করেন। আর তা দেখতে হাজার হাজার মানুষ ভিড় করেন মণ্ডপে। তেঁতুলতলার এই জাগ্রত পুজোয় ঢল নামে ভক্তদের।

বরণের আগে শাড়ি পরে বারোয়ারির সদস্যরা। ছবি:‌ পার্থ রাহা‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top