নিরুপম সাহা,হাবড়া: বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবসে কলেজের ভিতরে গোলমাল করল এবিভিপি–র ছাত্ররা। তৃণমূলের অভিযোগ, মত্ত অবস্থায় কলেজে ঢুকেছিল এবিভিপি–র দুই ছাত্র। তার প্রতিবাদ করতে গেলে তারা মারমুখী হয়ে ওঠে। হাতাহাতি শুরু করে। যদিও তৃণমূলের এই অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করেছে এবিভিপি। এই ঘটনায় দুই পক্ষই পুলিশের কাছে একে অপরের নামে অভিযোগ দায়ের করেছে।
শিক্ষক দিবস উপলক্ষে এদিন হাবড়ার শ্রীচৈতন্য কলেজে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা কমিটির সমস্য বিশাল দে–র অভিযোগ, ‘‌শিক্ষক দিবসের মতো একটি বিশেষ দিনে তুহিন দাস নামে কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্র মত্ত অবস্থায় কলেজের কয়েকজন ছাত্রীর সঙ্গে অশালীন আচরণ করে। এক ছাত্রীর হাত ধরেও টানাটানি করে। তার প্রতিবাদ করতে গেলে মত্ত ছাত্র ও তার সঙ্গীদের সঙ্গে হাতাহাতি শুরু  হয়ে যায়। পরে জানতে পারি তুহিন দাস এবিভিপি কর্মী।’‌ অন্যদিকে, তুহিন দাসের অভিযোগ, অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার কলেজে গেলে আমাকে মারা হয়। গোলমালের খবর পেয়ে হাবড়া থানা থেকে পুলিশ এসে অবস্থা সামাল দেয়। এদিকে, শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠান নিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের রোষের শিকার হল কালীপুর স্বামীজি হাইস্কুলের এক ছাত্র। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ছাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে আরামবাগে।

ক্ষুব্ধ তৃণমূল ছাত্র–কর্মীদের সঙ্গে কথা বলছে পুলিশ। ছবি: প্রতিবেদক
 

জনপ্রিয়

Back To Top