‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌এ কোন সকাল এ তো রাতের চেয়েও অন্ধকার।’‌ লোকসভা নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে ততই বিজেপি’‌র সভাগুলিতে দিনের বেলাতেই নেমে আসছে আঁধার। যা সত্যিই দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিজেপি’‌র শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে। কারণ বিজেপি’‌র হেভিওয়েট নেতা–মন্ত্রীদের সভায় ভিড় হচ্ছে না। কখনও দেখা যাচ্ছে অনুপম খের তাঁর স্ত্রী কিরণ খেরের নির্বাচনী সভায় উপস্থিত থাকলেও ভিড় হল না। কখনও দেখা যাচ্ছে যোগী আদিত্যনাথের সভায় মাঠ ফাঁকা। আবার দেখা যাচ্ছে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সভায় কেউ গেলই না। যার ফলে চিন্তার ভাঁজ পড়ছিল কপালে।
এবার যা হল তা আরও চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ালো বিজেপি নেতৃত্বের কাছে। বৃহস্পতিবার দিল্লির শাস্ত্রী নগরে সভা ছিল বিজেপি’‌র শীর্ষ নেতা তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের। আশা করা হয়েছিল লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হবে।

ভিড় সামলাতে হিমশিম খেতে হবে। কিন্তু যা হল তা হচ্ছে ফাঁকা ময়দানে মাছি মারা। একে তো লোক সমাগম হলই না। উলটে যে ক’‌জন এলেন তাঁরা হাই তুলে ঘুমিয়ে পড়লেন। আবার কেউ কেউ পাস দিয়ে হেঁটে চলে গেলেন। একবারের জন্য তাকালেনও না। বসলেনও না। 
ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরকে নিয়ে আসা হয়েছিল সভা ভরানোর জন্য। তাও গেল জলে। ফলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজধানীর মানুষ কি মুখ ফিরিয়ে নিল?‌ নাকি সবাই আপকে ভোট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন?‌ সেটা অবশ্য ২৩ মে জানা যাবে। তার আগে এই সভাগুলিতে প্রদীপের তলার অন্ধকারকেই বড় করে দেখাচ্ছে। যা নিয়ে প্রমাদ গুনছে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ছবি অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যয়ের তরফ থেকে টুইট করা হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top