আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বেলা বাড়তে না বাড়তেই প্রখর রোদ। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভ্যাপসা গরম। একে চৈত্রের শেষ। তার উপর লকডাউনে বাড়ি বসে তীব্র গরমে যাই যাই অবস্থা আমজনতার। এই পরিস্থিতিতে আশার কথা শোনাল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত এ রাজ্যে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বিকেলের পর থেকে কমতে পারে তাপমাত্রার পারদও।
আবহাওয়াবিদদের দাবি, উত্তর–পশ্চিম শীতল হাওয়ার সঙ্গে বঙ্গোপসাগরের পূবালি হাওয়ার মিলনে রাজ্যজুড়ে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তর–পশ্চিম ভারতে ঢুকছে পশ্চিমি ঝঞ্ঝা। এই ঝঞ্ঝার সঙ্গে জলীয় বাষ্প পূর্ণ হাওয়ার সংমিশ্রণে তৈরি হবে বজ্রগর্ভ মেঘ। তার প্রভাবেই উত্তর ও দক্ষিণ দুই বঙ্গেই রবিবার পর্যন্ত ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী দু’দিন উত্তরবঙ্গে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টিও হতে পারে। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা।
শুক্র ও শনিবার দক্ষিণবঙ্গের কিছু জেলায় ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম বর্ধমান এবং দুই মেদিনীপুরে বৃষ্টি হতে পারে। উত্তরবঙ্গেও ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা এড়ানো যাচ্ছে না। কোথাও কোথাও শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে। এছাড়া আগামী ৪৮ ঘণ্টায় সিকিম, ওডিশা, ছত্তিশগড় ও বিহারে ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস। তাপপ্রবাহ চলবে গুজরাট, রাজস্থানের কিছু অংশে। কর্ণাটকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃহস্পতিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তীব্র গরম থেকে মুক্তি পাওয়ার আশ্বাসে খানিকটা স্বস্তিতে গোটা রাজ্যবাসী। 

  

‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top