আজকাল ওয়েবডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টের ২৪ ঘণ্টাও কাটেনি। ডোমজুড়ে রাজীব ব্যানার্জির বিরুদ্ধে পোস্টার। গতকাল রাজীব ব্যানার্জি সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘কথায় কথায় দিল্লি বা ৩৫৬ ধারা কথা বললে বাংলার মানুষ ভালো চোখে দেখবে না। বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে নির্বাচিত একটা সরকার এসেছে। এখন ইয়াস বিধ্বস্ত বাংলার মানুষের পাশে সকলের থাকা উচিত।’ এই টুইট নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে যায়। তবে তৃণমূলের তরফে আজ সকালে ডোমজুড়ের সলপ বাজার এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা রাজীব ব্যানার্জিকে উদ্দেশ্য করে পোস্টার দেয়। পোস্টারে লেখা আছে, ‘মিরজাফর, গদ্দার, বেইমানদের ডোমজুড়ে ঠাঁই নেই।’

হাওড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সদরের চেয়ারম্যান অরূপ রায় বলেন, দুরাত্মার ছলের অভাব হয় না। এখন তিনি মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে দলে ঢোকার চেষ্টা করছেন। অনেক সময় শয়তান চার্চে গিয়েও ভাল ভাল কথা বলে। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, রাজীববাবু যে অভিনয় করছেন তাতে উৎপল দত্ত বেঁচে থাকলে তিনিও লজ্জা পেতেন। 

অন্যদিকে, ডোমজুড়ের তৃণমূল বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ জানান, পোস্টার পড়ার কারণ দলীয় কর্মীদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। তবে কাউকে দলে ফেরানোর ব্যাপারে রাজ্য নেতৃত্ব চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

প্রসঙ্গত, ভোটের আগে চাটার্ড ফ্লাইটে দিল্লি গিয়ে অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন রাজীব ব্যানার্জি। সেখানেই যোগদান করেন তিনি। তারপর থেকেই স্বয়ং তৃণমূল নেত্রীও ‘দলবদলু’-দের মীরজাফর, গদ্দার বলে কটাক্ষ করেন। আর গতকাল রাজীবের এহেন পোস্ট যে কোনও ইঙ্গিত তা বুঝতে পেরেই তাঁর বিরুদ্ধে পোস্টার গোটা এলাকায়। বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে, নিচুতলার কর্মীরা কোনওভাবেই দলত্যাগীদের ফিরিয়ে আনার ক্ষেত্রে নারাজ।

জনপ্রিয়

Back To Top