আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ টালিগঞ্জ থানায় পুলিশকে মারধরের ঘটনার রেশ এখনও দগদগে। তার মধ্যে এবার মালদায় পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালাল গ্রামবাসীরা। ভাঙচুর করা হল পুলিশের গাড়ি। লন্ডভন্ড গোটা এলাকা। লাঠিচার্জ করেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় শূণ্যে গুলি চালাতে বাধ্য হয় পুলিশ। গভীর রাতে মালদহের রতুয়া থানার মহানন্দাটোলার পুলিশ ফাঁড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয় সূত্রে খবর, রবিবার রতুয়ার বিলাইমারি গ্রামে একটি ট্র্যাক্টরের ধাক্কায় মৃত্যু হয় পরিমল মণ্ডল নামে এক ব্যক্তির। পরিবারের অভিযোগ, মহানন্দাটোলা পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ জানাতে গেলে সেই অভিযোগ নিতে গড়িমসি করে পুলিশ। এমনকী ট্র্যাক্টর চালককে গ্রেপ্তার বা আটকও করা হয়নি। এই নিয়েই তুলকালাম শুরু হয় এলাকায়। তবে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়।
ময়নাতদন্তের পর দেহ আনা হলে থানায় গিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন পরিবারের সদস্যরা। তখন পুলিশের সঙ্গে বচসা বাঁধে। তখনই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। ফাঁড়ি ঘেরাও করেন গ্রামবাসীরা। ফাঁড়িতে ভাঙচুর চালায় বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা। ভাঙচুর চালানো হয় পুলিশের গাড়িতেও। পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ছুটে আসে রতুয়া থানার পুলিশ। তারা প্রথমে লাঠিচার্জ করে। পরে গুলিও চালানো হয়। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ৬ রাউন্ড গুলি চালিয়েছে পুলিশ। পরে মানিকচক থানা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় যান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক সরকার।৫ জনকে এই ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top