আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তৃণমূল নেতা ছত্রধর মাহাতকে নিজেদের হেপাজতে নিয়ে জেরা করতে চায় এনআইএ। এই নিয়ে আদালতে আবেদন করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। বিচারক হলফনামা পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে। পরবর্তী শুনানি ২০ জানুয়ারি।
দু’‌টি মামলায় নাম জড়িয়েছে তৃণমূল রাজ্য কমিটির নেতার। ২০০৯ সালের ১৪ জুন ধরমপুরে সিপিএম নেতা প্রবীর মাহাত খুনের অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় ঘটনা হল, দিল্লি–ভুবনেশ্বর রাজধানী এক্সপ্রেস ছিনতাই। এনআইএ–র অভিযোগ, এই ঘটনায়ও যুক্ত ছিলেন ছত্রধর মাহাত।
২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে ছত্রধরকে সাংবাদিক সেজে গ্রেপ্তার করা হয়। ইউপিএ আইনে মামলা শুরু হয়। ২০১২ সালে সেই মামলায় দোষী সাব্যস্ত হন তিনি। যদিও আদালত রাজনৈতিক বন্দির মর্যাদা দেয়। ২০২০ সালে জেল থেকে ছাড়া পান ছত্রধর। মাওবাদী সমর্থিত জনসাধারণের কমিটির প্রাক্তন নেতা। 
তার পরেই যোগ দেন তৃণমূলে। লকডাউনের মধ্যেই ৩০ মার্চ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ছত্রধরের বিরুদ্ধে দু’‌টি মামলায় ফের তদন্তের নির্দেশ দেয়। গত আগস্টে ছত্রধরকে ঝাড়গ্রামের শালবনিতে সিআরপিএফ-এর কোবরা ক্যাম্পে ডেকে জেরা করে এনআইএ। তৃণমূল নেতৃত্ব অবশ্য দাবি করেছে, এর পিছনে রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধি করা হচ্ছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top