নিরুপম সাহা, ‌হাবড়া: ভালবেসে মনের মানুষকে বিয়ে করেও পরিবারের অত্যাচারে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন নবদম্পতি। অবশেষে পুলিশের দ্বারস্থ হয়ে নিজেদের বন্ধন অটুট রাখলেন। হাবড়া থানার পুলিশের এই ভূমিকায় খুশি তঁারা।
পূর্ব বর্ধমানের জেবি মিত্র রোডের যুবতী, বিএসসি প্রথমবর্ষের ছাত্রী সুস্মিতা সেনের সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে আলাপ হয় উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়ার যুবক সৌরভ দেবনাথের। তারপর প্রেম। গত ২৩ জুলাই তঁারা দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন। এর পর যে যার বাড়িতে ফিরে যান। কিন্তু পাত্র হিসেবে সৌরভকে মেনে নেবেন না বলে সুস্মিতাকে জানিয়ে দেয় তার পরিবার। তাই প্রেমিক তথা স্বামী সৌরভকে নিয়ে চলে আসেন হাবড়া থানায়। আইসি গৌতম মিত্রর কাছে সহযোগিতা চান। ইতিমধ্যে হাবড়া থানায় হাজির হয়ে সুস্মিতার পরিবার অপহরণের অভিযোগ করে। নবদম্পতি দুজনেই প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তঁাদের অভিযোগ ধোপে টেকেনি। পুলিশের সহযোগিতায় এদিন হাবড়ায় স্বামী সৌরভের হাত ধরে শ্বশুরবাড়িতে যান সুস্মিতা। ফেরার আগে দুজনেই আইসি গৌতম মিত্রকে প্রণাম করেন।

জনপ্রিয়

Back To Top