আজকালের প্রতিবেদন: রাজ্য প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে সচিব বদল হল। অনিল বর্মা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং জৈবপ্রযুক্তি দপ্তরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব হলেন। এতদিন তিনি ওয়েস্ট বেঙ্গল ডিস্ট্রিক্ট গেজেটিয়ার্সের প্রিন্সিপাল স্টেট এডিটর ছিলেন। ১৯৮৫ সালের আইএএস সুমন্ত চৌধুরি এতদিন শুধু অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের অধিকর্তা ছিলেন। এখন থেকে এই দায়িত্বের পাশাপাশি দিল্লির রেসিডেন্স কমিশনার অফিসে বিশ্ব বাংলার ওএসডি–র দায়িত্ব সামলাবেন। বরুণ রায় যুবকল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তরের প্রধান সচিব হলেন। এতদিন তিনি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং জৈবপ্রযুক্তি দপ্তরের দায়িত্বে ছিলেন। এখন এই পদের দায়িত্ব পেলেন ছোটেন লামা। তিনি এতদিন পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের বিভাগীয় সচিব ছিলেন। রাজেশকুমার সিনহা এখন থেকে শুধুমাত্র আদিবাসী উন্নয়ন দপ্তরের দায়িত্ব পালন করবেন। এতদিন তাঁর হাতে যুবকল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তরের অতিরিক্ত দায়িত্বও ছিল। ১৯৯৭ সালের আইএএস রাজীব কুমার হলেন নতুন স্টেট এডিটর, ওয়েস্ট বেঙ্গল ডিস্ট্রিক্ট গেজেটিয়ার্স। এতদিন তিনি অপ্রচলিত শক্তি দপ্তরের দায়িত্বে ছিলেন। তেজস ভি রানা পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের ওএসডি থেকে ভূমি দপ্তরের ওএসডি–র দায়িত্বে এলেন।‌

জনপ্রিয়

Back To Top