মিল্টন সেন, হুগলি: স্বামীকে খুনের প্রায় দু বছর পর গ্রেপ্তার স্ত্রী এবং তার প্রেমিক। শুক্রবার রাতে তারাপিঠের একটি হোটেল থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার করে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ। ধৃত দুজন টুম্পা চ্যাটার্জি এবং চিন্ময় চক্রবর্তী। ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে, উত্তরপাড়া থানার অন্তর্গত অলিম্পিক ময়দান সংলগ্ন এলাকায়। রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় মৃত্যু হয় প্রীতম চ্যাটার্জির। বেপাত্তা হয়ে যায় স্ত্রী টুম্পা। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে ঘুমের মধ্যে বালিশ চাপা দিয়ে তাঁকে খুন করা হয়েছে প্রীতমকে। খুনের সঙ্গে স্ত্রী ও তার প্রেমিকের যোগ খুঁজে পায় পুলিশ। উত্তরপাড়া থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের হয় স্ত্রী টুম্পা এবং তার প্রেমিক চিন্ময়ের বিরুদ্ধে। তখন থেকেই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল দুজন।একাধিক বার খোঁজ পেলেও পুলিশকে ভাঁওতা দিয়ে সেখান থেকে গায়েব হয়েছে দুজন। এভাবেই গত দুবছরে বেশ কয়েকবার পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে আস্তানা বদল করেছে দুজন। থেকেছে দেশের বিভিন্ন হোটেলে। এদিকে অভিযুক্ত যুগলের পেছনে জোঁকের মতো লেগেছিল পুলিশের তদন্তকারী দল। অবশেষে শুক্রবার বেলায় গোপন সূত্রে পুলিশের কাছে খবর আসে। তাড়াপীঠের উদ্দেশ্যে রওনা হয় উত্তরপাড়া থানার তদন্তকারী দল। রাতে তল্লাশি চালিয়ে তাড়াপীঠের একটি বিলাস বহুল হোটেল থেকে দুজনকে পাকড়াও করে পুলিশ।শনিবার ধৃত দুজনকে পাঁচ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে শ্রীরামপুর আদালত। অভিযুক্ত দুজন গ্রেপ্তার হওয়ায় খুশি প্রীতমের পরিবার। থমকে থাকা তদন্ত এবার এগোবে সে বিষয়ে আশাবাদী তাঁরা।

ছবি সৌগত রায়। 

জনপ্রিয়

Back To Top