আজকালের প্রতিবেদন- প্রতারণা মামলায় বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে জেরা করল পুলিশ। সোমবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ বেহালায় সহকারী পুলিশ কমিশনারের অফিসে তিনি যান। সন্ধে ৬টা পর্যন্ত তঁাকে জেরা করা হয়। ‘‌জোনাল রেলওয়ে ইউজার কনসাল্টেটিভ কমিটি’‌–‌তে সদস্যপদ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি টাকা নেন। ওই ব্যবসায়ীকে বলা হয়েছিল, সদস্যপদ পেলে তিনি বাতি–লাগানো গাড়ি পাবেন, অন্য সুযোগ–‌সুবিধেও পাবেন। এই অভিযোগ সরশুনা থানায় জানানো হয়। ব্যবসায়ী সন্তু গাঙ্গুলি অভিযোগে জানিয়েছিলেন, ২০১৫–‌র সেপ্টেম্বর থেকে পর্যায়ক্রমে ৭০ লক্ষ টাকা নেন বাবান ঘোষ নামে এক ব্যক্তি। অভিযোগ, তিনি মুকুল–‌ঘনিষ্ঠ। বাবানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর পর এই মামলায় গত শুক্রবার মুকুলের গ্রেপ্তারিতে স্থগিতাদেশ বাড়ায় হাইকোর্ট। ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তা জারি থাকবে। বিচারপতি শহিদুল্লাহ মুন্সির ডিভিশন বেঞ্চে শুনানি চলছে। মুকুল রায় এ বিষয়ে বলেছেন, ‘‌চক্রান্ত চলছে’‌। এদিন মুকুল রায় পুলিশকর্তাদের সঙ্গে দেখা করেন। তঁাকে কয়েকটি প্রশ্ন করা হয়। তিনি সমস্ত প্রশ্নেরই উত্তর দিয়েছেন। প্রয়োজনে তঁাকে ফের জেরা করা হতে পারে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top