‌বিজয়প্রকাশ দাস, পূর্ব বর্ধমান: সেই চুরি যাওয়া স্মার্ট মোবাইলটি ফেরত দিয়ে গেল চিঠি লিখে রেখে যাওয়া চোরবাবাজি। মোবাইলের মালিক ভাতার থানার কলপুকুর এলাকার বাসিন্দা সজন মিঁয়ার কাছ থেকে এই খবর পেয়ে ভাতার থানার পুলিস বলতে বাধ্য হল, ‘সত্যিই আজব মোবাইল চোর!‌ অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্যিকারের ঘটনা।’
মাত্র তিনদিন আগে রাতে ঘুমন্ত গৃহস্থ বাড়ির জানলা ভেঙে চুরি যায় শুধুই একটি মোবাইল। স্মার্ট মোবাইলের ভেতর থেকে সিম কার্ড দু’‌টি খুলে জায়গা মতো রেখে মোবাইল নিয়ে উধাও হয়ে গিয়েছিল চোর। লিখে রেখে গেয়েছিল একটি চিঠিও। তাতে চুরি করে নিয়ে যাওয়া মোবাইলটি একমাসের মধ্যে ফেরত দিয়ে যাওয়ার কথাও দিয়ে গিয়েছিল চোরবাবাজি। বলেছিল, বিশেষ দরকারে সে এই মোবাইলটি নিতে বাধ্য হল। এদিন মোবাইলটি ফেরত দিয়ে সত্যিই নিজের দেওয়া সেই কথা রেখেছে ‘‌বিশ্বাসযোগ্য’‌ চোর। রবিবার সাত সকালেই গোয়াল ঘর থেকে চুরি যাওয়া মোবাইলটি পেয়ে পেশায় লটারির ব্যবসায়ী সজন মিঁয়া ভাতার থানায় করা অভিযোগ তুলে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। 
তিনি পুলিসের কাছে জানিয়েছেন, এদিন সকালে তঁার মা যখন গোয়াল ঘরে গরু বার করতে যান, তখন তিনি দেখতে পান গোয়াল ঘরের সামনে চুরি যাওয়া মোবাইলটি ও চার্জার পড়ে আছে। তিনি সেটি নিয়ে সঙ্গে সঙ্গে তঁার হাতে দিয়েছেন। কিন্তু এদিন চোর কোনও চিঠি লিখে রেখে যায়নি। 
তবে নিজের মোবাইল ফেরত পেয়ে খুব খুশি সজন মিঁয়া। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকার মানুষজন বেশ অবাক হয়ে যান। তঁারা এসে ভিড় করেন সজন মিঁয়ার বাড়ির সামনে। তারপরই সজন মিঁয়া থানায় লিখিতভাবে মোবাইল ফিরে পাওয়ার কথা জানাতে গেলে খুব মনোযোগ দিয়ে তঁার মোবাইল চুরির পুরো ঘটনাটি শোনেন বাঘা বাঘা দারোগা। কিন্তু এমন চোরের কাহিনি শুনে রীতিমতো তাজ্জব বনে যান তঁারাও।      কার্টুনটি সংগৃহীত

জনপ্রিয়

Back To Top