আজকালের প্রতিবেদন: ‘‌আমফান’‌–এর কয়েক ঘণ্টার তাণ্ডব। তাতে বুধবার সন্ধের পর থেকে বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল, ইন্টারনেট যোগাযোগ থেকে বিচ্ছিন্ন। উৎকণ্টায় বন্ধু, স্বজনরা। কলকাতায় বসে পাশের জেলা হাওড়ায় আত্মীয়স্বজনের খোঁজ নেওয়া যাচ্ছে না। কোথাও আবার দু–কিলোমিটার দূরে বাবা–মা কেমন আছেন ফোন করে খোঁজ নেওয়া যায়নি। বন্ধ ইন্টারনেটও। ফলে হোয়াটসঅ্যাপ বা মেসেঞ্জারেও যে খোঁজখবর নেওয়া যাবে তার সম্ভাবনা দূর অস্ত। কোনও কুশল সংবাদ নিতে চেয়ে ‘‌মেসেজ’‌ করলেও তা পৌঁছয়নি। কোনও মতে মোবাইলে যোগাযোগ করা গেলেও একজনের কথা অন্যজন শুনতে পাচ্ছেন না। কয়েক সেকেন্ড পর ফের মোবাইল সংযোগহীন হয়ে গেছে। বন্ধ কেবল, ডিশ টিভির সংযোগও। ফলে কেউ অন্যত্র কোথায় কী হচ্ছে তার খবর পাচ্ছেন না। বহু জায়গায় বিদ্যূৎ বিভ্রাট হওয়ায় মোবাইলে চার্জ না থাকার কারণে সমস্যা আরও বেড়েছে। ফলে ঝড়ের প্রলয় যত বেড়েছে ততই উৎকণ্ঠআ বেড়েছে ছেলেমেয়ে, আত্মীয়, বন্ধু, স্বজনদের।
শুধু দেশ নয়, উদ্বিঘ্ন প্রবাসে থাকা লোকজনও। প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘‌আমফান’‌–এ কলকাতা–সহ দক্ষিণবঙ্গের বহু এলাকা বিপর্যস্ত, এমন খবর পেয়ে বিদেশে থাকা ছেলে–মেয়ে কলকাতায় থাকা বাবা–মা কেমন আছেন, জানতে বহু চেষ্টার পরও যোগাযোগ করতে পারেন নি।
খড়দার বাসিন্দা দীপান্বিতা অধিকারীর বাবা–মা থাকেন বাঘাযতীনে। ঝড় প্রবল হতেই উৎকণ্ঠিত হয়ে তাঁদের খোঁজ নেওয়ার চেষ্টা করেন। ততক্ষণে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে। সারারাত কয়েক দফা চেষ্টা করেও যোগাযোগ করতে পারেন নি। বৃহস্পতিবার বিকেলের পর কোনও মতে জানতে পারেন, বাবা–মা ভাল আছেন।
দমদমে থাকেন শুভ পাল। দাদু বেহালায় একা থাকেন। তাঁর অনেক স্বাভাবিক ভাবেই উদ্বেগে বারবার ফোন করে জানার চেষ্টা করতে থাকেন কোনও সমস্যা হচ্ছে কি না। বুধবার বিকেলে একবার যোগাযোগ করা গেলেও, তারপর থেকে ফোন ‘‌নীরব’‌। বারেবারে চেষ্টা করেও দাদুর আর কোনও খোঁজখবর পাচ্ছেন না তিনি। দ্বীপান্বিতা, শুভর মত পরিস্থিতি বহু মানুষের। কেউই দিনভর বহু চেষ্টা করেও আত্মীয়স্বজন, চেনা পরিচিতদের খোঁজ খবর পেতে পারেন নি। 
কেন এই পরিস্থিতি?‌ তার উত্তর দিতে পারে নি মোবাইল সংযোগকারী সংস্থাগুলি। জানা গেছে, বহু জায়গায় মোবাইল টাওয়ার উপড়ে পড়ে, বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার কারণে ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে গিয়ে এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে বেশ খানিকটা সময় লেগে যেতে পারে। ইন্টারনেট সংযোগ না থাকায় বহু জায়গায় ব্যাঙ্ক পরিষেবাও ব্যাহত হয়। সমস্যা হয় এটিএমে টাকা তোলায়ও।‌

জনপ্রিয়

Back To Top