‌দীপঙ্কর নন্দী: ঐক্যবদ্ধ ভারত দেখতে চাই। এর জন্য কঠিন লড়াই করতে হবে। যত কঠিনই হোক সকলকে নিয়ে আমি এই লড়াই করতে চাই। 
আন্তর্জাতিক ভাষা দিবসে দেশপ্রিয় পার্কে একথা বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি ভাষা দিবস উদ্‌যাপন অনুষ্ঠানে অংশ নেন। উপস্থিত শিল্পী, সাহিত্যিকদের সঙ্গে ভাষা স্মারকে ফুল দেন। অনুষ্ঠানে অনেকেই নাগরিকপঞ্জির বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন। নাগরিকপঞ্জি নিয়ে মমতার লেখা ও সুর দেওয়া গানটি করেন ইন্দ্রনীল সেন। আপ–‌এর প্রাক্তন নেতা যোগেন্দ্র যাদব স্পষ্ট বলেন, ‘‌হিন্দি রাষ্ট্রভাষা নয়। আমি বাংলা বলতে পারি না ভাল, তবে বুঝতে পারি। আমি মনে করি, ভারত বহু ভাষাভাষির দেশ। হিন্দি ভাষা ছোট বোনের মতো। নির্দিষ্ট একটি ভাষা এখানে নেই। এনআরসি হলে আমার নাগরিকত্ব চলে যাবে। তাই আমি এনআরসি–‌র বিরুদ্ধে।’‌
এদিন মমতা বলেন, ‘‌দেশপ্রিয় পার্কে ভাষা ‌দিবসের মঞ্চে বিশিষ্টরা এসে ভাষা নিয়ে যেসব বক্তব্য রাখলেন, এই চর্চা দু’‌ঘণ্টার মধ্যে হয় না। আমার তো মনে হয়, আগামী দিনে সারারাত জুড়ে এ ধরনের অনুষ্ঠান হওয়া প্রয়োজন। এ ব্যাপারে নিশ্চয় চিন্তা–‌ভাবনা করব। ২১শে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশেও আন্তর্জাতিক ভাষা দিবস পালন করা হয়। ১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো ওখানে বাংলা ভাষার স্বীকৃতি দেয়।’‌ মমতা এদিন বলেন, ‘মানুষ একা চলতে পারে না। যে ভাষা মাটির ভাষা, সকলের বলতে পারার ভাষা, গ্রামের ভাষা, পথের ভাষা সেটাই আসল ভাষা। বাংলা ভাষা খুব মিষ্টি। বুদ্ধি ও মেধার ভাষা। হিন্দি ভাষাও আমি বলতে পারি। মাতৃভূমি, কন্যাভূমি, কৃষিভূমির কথা সর্বদা মনে রাখতে হবে। মাকে ছিন্নভিন্ন করে কিছু হয় না। আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’
অনুষ্ঠানে এদিন সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রতুল মুখোপাধ্যায়, ইন্দ্রনীল সেন, শ্রীরাধা বন্দ্যোপাধ্যায়, নচিকেতা, সুরজিৎ চট্টোপাধ্যায়, মনোময় ভট্টাচার্য, বিবেক কুমার। সুবোধ সরকার, জয় গোস্বামী, শ্রীজাত কবিতা পড়েন। যোগেন চৌধুরি নিজের লেখা কবিতা পাঠ করেন। ইন্দ্রনীল মমতার লেখা ২টি গান পরিবেশন করেন। ইন্দ্রনীলের কণ্ঠে গান শুনে দর্শকরা অভিনন্দন জানান। বক্তব্য পেশ করেন শুভাপ্রসন্ন, তনুশ্রী শঙ্কর, যোগেন্দ্র যাদব, আবুল বাশার, অলকানন্দা রায়। তনুশ্রী শঙ্কর বলেন, ‘‌আমার বেশ মনে আছে আনন্দশঙ্করজি যেদিন মারা যান সেইদিন আমার পাশে সারা দিন মমতাদি ছিলেন। আমি মমতাদিকে কোনও দিন ভুলতে পারব না।’‌ অনুষ্ঠান শুরু হয় বিকেল ৫টা নাগাদ। মমতা দেশপ্রিয় পার্কে এসে অতিথিদের নিয়ে যান শহিদ স্মারকের কাছে। সকলেই পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেন। মন্ত্রীদের মধ্যে ছিলেন সুব্রত মুখার্জি, শোভনদেব চ্যাটার্জি, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। অন্যদের মধ্যে ছিলেন শিবাজি চট্টোপাধ্যায়, শান্তনু রায়চৌধুরি, দীনেশ ত্রিবেদী, মালা রায়, দেবাশিস কুমার, নির্মল মাজি, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়।‌ দেশপ্রিয় পার্কে এদিনের অনুষ্ঠানে বহু মানুষ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রিনি বিশ্বাস।‌‌

 

শ্রদ্ধাঞ্জলি। দেশপ্রিয় পার্কে ভাষা শহিদ স্মারকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। রয়েছেন চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, মনোময় ভট্টাচার্য, সুরজিৎ চ্যাটার্জি, প্রণতি ঠাকুর, মালা রায় ও সুব্রত ‌মুখার্জি। শুক্রবার। ছবি:‌ বিজয় সেনগুপ্ত

জনপ্রিয়

Back To Top