বিজয়প্রকাশ দাস, পূর্ব বর্ধমান: এবার জাতীয় সড়ক ৬ লেনে সম্প্রসারণের ফলে শক্তিগড় লাংচা বাজারের সমস্ত দোকানই ভাঙা পড়তে চলেছে। উন্নয়নের স্বার্থে এখানকার জমি অধিগ্রহণের ব্যাপারে কেউ বাধা দেননি। বরঞ্চ জমি দিতে এগিয়ে এসেছেন ব্যাবসায়ীরা। তাই যাতে রাস্তা তৈরি হয় এবং ল্যাংচা বাজারও যাতে থাকে বা নতুন করে গড়ে ওঠে সে নিয়ে দফায় দফায় আলোচনা ও বৈঠক হয়েছে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ, জেলা প্রশাসন ও ব্যাবসায়ীদের মধ্যে।
যোগাযোগ ব্যাবস্থার আরও উন্নতি সাধনে এবার পূর্ব বর্ধমানে ২ নম্বর জাতীয় সড়ককে ৪ লেন থেকে ৬ লেনে সম্প্রসারিত করা হবে। এই সম্প্রসারিত জমির ওপর শক্তিগড় ল্যাংচা বাজারটি পড়েছে। ফলে সম্পূর্ণ বাজারটির ভবিষৎ কি হবে সে নিয়ে সর্বত্র আলোচনা চলছে। সম্প্রসারণের জন্য জেলায় জাতীয় সড়কের দুপাশের প্রয়োজনীয় জমি অধিগ্রহণের ব্যাপারে ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসন বিভিন্ন ব্লক আধিকারিক ও এন এইচ কর্তৃপক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসেছিলেন। তাতেই এন এইচ কর্তৃপক্ষ ল্যাংচার দোকানগুলি ওই নির্ধারিত জমি অধিগ্রহনের মধ্যে পড়েছে বলে জানিয়েছিলেন। তাই যাতে সহজে এই জমি অধিগ্রহণ করে তাদের বিকল্প কোনও ব্যবস্থা করে দেওয়া যায় সে নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়েছে। স্থানীয় বিধায়ক নিশীথ মালিক জানান, জাতীয় সড়ক ৪ লেন থেকে ৬ লেনে সম্প্রসারিত করার জন্য এখনকার রাস্তার বাইরে আরও ৩০ ফুট জায়গা নেওয়া হচ্ছে। সেই ৩০ ফুটের মধ্যে পড়ে গেছে ঐতিহ্যপূর্ণ ল্যাংচা বাজারের সবকটি দোকান। তাই শক্তিগড়ের সব ল্যাংচার দোকানই ভাঙা পড়বে। এখানে রয়েছে মোট ৪২টি দোকান। এই জায়গা নেওয়ার জন্য তাদের সরকারী নির্ধারিত মূল্যের দ্বিগুণ দাম দেওয়া হবে। ২০২০ সালে এই সম্প্রসারণের কাজ শুরু হবে। কিন্তু জমি অধিগ্রহণের ব্যাপারে কেউ কোনও বাধা দেননি।

 

শক্তিগড়ের ল্যাংচাবাজার। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top