অলক সরকার, শিলিগুড়ি: ‘‌মুখে রাম, পেছনে নাথুরাম নিয়ে ঘোরে বিজেপি সরকার।’‌ এনআরসি–র বিরোধিতা করতে গিয়ে এই ভাষাতেই বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করলেন কানহাইয়া কুমার। বললেন, ‘‌নরেন্দ্র মোদি দ্ব্যর্থক ভাষায় কথা বলেন। ওঁরা মনে করেন, জাতির পিতা হওয়া দরকার ছিল নাথুরাম গডসের। অথচ সাড়ম্বরে মালা পরাতে যান গান্ধীজির গলায়। সকালে কংগ্রেস নেতার বাড়িতে ইডি–‌হানার ভয় দেখিয়ে বিকেলে বিজেপি–তে যোগ দেওয়ার কথা বলেন। এঁরা বলেন এক, করেন আরেক। তাই এনআরসি নিয়ে যা বলছেন, তার কিছুই করবেন না। এনআরসি–র নামে উত্তর–পূর্ব ভারতে বিজেপি আসলে ভোটের জমি তৈরি করছে।’
এনআরসি–র বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে প্রতিবাদ–‌আন্দোলন গড়ে তোলার উদ্দেশে গঠিত হয়েছে নাগরিকপঞ্জি–বিরোধী যুক্ত মঞ্চ। এই মঞ্চের তরফে পাহাড় থেকে সাগর এনআরসি–বিরোধী যাত্রা শুরু হল শুক্রবার থেকে। যার প্রথম বড় সভার আয়োজন করা হয় শিলিগুড়ি বাঘাযতীন ক্লাব সভাকক্ষে। যেখানে যুক্ত মঞ্চের আহ্বায়ক প্রসেনজিৎ বসু, আলি ইমরান রমজ (‌ভিক্টর)‌, ইমতিয়াজ আহমেদ মোল্লাদের সঙ্গে এদিন সমবেত হয়েছিলেন জেএনইউ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক তথা দেশের তরুণ নেতা কানহাইয়া কুমার। এনআরসি–র নামে অসমে ১২ লক্ষ বাঙালি হিন্দু, ৫ লক্ষ বাঙালি মুসলিম, দেড় লক্ষ গোর্খা ছাড়াও দলিত, আদিবাসী এবং অন্য ভাষাভাষীর মানুষকে নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ দিয়ে যে অরাজকতা সৃষ্টি করেছে, সেই অসমকে মডেল করে যেভাবে দেশ জুড়ে এনআরসি–র নামে মানুষকে নির্যাতন করার চক্রান্ত করছে বিজেপি সরকার, তারই বিরুদ্ধে যুক্ত মঞ্চ ২৬ দিন ধরে এনআরসি–বিরোধী যাত্রা করবে। উত্তরবঙ্গে শিলিগুড়ির পর শনিবার চাকুলিয়া, তার পর ইটাহার, মালদা, মুর্শিদাবাদ হয়ে সর্বশেষ মহাসমাবেশ হবে কলকাতায়। কানহাইয়া এদিন বলেন, ‘‌এনআরসি–র নামে আসলে হিন্দু–মুসলিমের মধ্যে নতুন করে ঘৃণার পরিবেশ ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে, যাতে হিন্দু–‌ভোটকে এক করে বিজেপি ক্ষমতায় থাকতে পারে। সরকারের কাজ মানুষের মৌলিক অধিকারগুলিকে নিশ্চিত করা। অথচ এরা বিএসএনএল বিক্রি করে দিচ্ছে। ব্যাঙ্ক তুলে দিচ্ছে। হাজার হাজার কৃষক আত্মহত্যা করছে।’‌ কানহাইয়া এদিন বলেন, ‘‌এরা ক্ষমতায় আসার জন্য বিকাশের কথা বলেছে। কিন্তু এখন বিনাশ করছে।’‌
এদিন প্রত্যেক বক্তার বক্তব্যেই উঠে আসে গোর্খা–‌প্রসঙ্গ। উঠে আসে চা–বাগানের আদিবাসী মানুষের কথা। যাঁদের না আছে জমির পাট্টা, না আছে কোনও নথি। দেশের গরিব মানুষের কথা ভেবেই এনআরসি–র বিরুদ্ধে চরম আন্দোলনের ডাকও দেওয়া হল এদিনের সভা থেকে।

শিলিগুড়িতে এনআরসি–বিরোধী সমাবেশে কানহাইয়া কুমার। শুক্রবার। ছবি:‌ শৌভিক দাস‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top