মিল্টন সেন,হুগলি: কোনও বিদেশি নাগরিক বিজনেস ভিসা নিয়ে এ দেশে এসে রাজনৈতিক প্রচারে অংশ নিতেই পারেন। সংবিধানে কোনও আইনে বলা নেই যে, এ ক্ষেত্রে তাঁর ভিসা বাতিল হতে পারে। প্রচার বিতর্কে বাংলাদেশি অভিনেতা ফিরদৌসের পক্ষ নিয়ে এ কথা জানিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনায় সরব হলেন তৃণমূলের আইনজীবী নেতা ও বিদায়ী সাংসদ কল্যাণ ব্যানার্জি। তাঁর অভিযোগ, অভিনেতার ভিসা বাতিল করে বেআইনি কাজ করেছে কেন্দ্র সরকার।
বুধবার সকালে শ্রীরামপুর বটতলায় প্রচার চলাকালীন এই কেন্দ্রের তৃণমূলপ্রার্থী কল্যাণ ব্যানার্জি বলেন, ‘‌বিজনেস ভিসা নিয়ে ফিরদৌস এ দেশে এসেছিলেন। তিনি অভিনেতা। প্রচার করেছেন। সে তো পয়সা নিয়েও হতে পারে। অনেক সময় শিল্পীদের নিয়ে আসা হয় প্রচারে। তাঁরা পয়সা নিয়ে প্রচারে অংশ নিয়ে থাকেন। ওটাই তাঁর ব্যবসা। এটা তাঁর কাছে পার্ট অফ আ বিজনেস‌। এই ভিত্তিতে ভিসা বাতিল হল মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী। সংবিধান–বিরুদ্ধ।’‌ এ প্রসঙ্গে আইনের বিভিন্ন ধারার উল্লেখ করেছেন তৃণমূলের এই আইনজীবী নেতা। বলেছেন, ‘‌সংবিধানের ১৯, ২০, ২১ ধারা অনুযায়ী যে কোনও ব্যাক্তি বিজনেস ভিসা নিয়ে এসে ব্যবসায়িক দৃষ্টভঙ্গি থেকে প্রচারে অংশ নিতে পারেন। এর জেরে তাঁর ভিসা কখনওই বাতিল করা যায় না।’‌ এদিন প্রচার চলাকালীন বটতলা এলাকায় স্থানীয়দের মধ্যে দলীয় জোড়াফুল প্রতীক দেওয়া সন্দেশ বিলি করেন তিনি। পরে শেওড়াফুলি এলাকাতেও পায়ে হেঁটে গোলাপ ফুল বিলি করে প্রচার সারেন।
এদিকে, ‘‌বিজেপি শ্রীরামপুর’‌ নামে একটি ফেসবুক পেজ থেকে কল্যাণ ব্যানার্জির বিরুদ্ধে বিভ্রান্তিকর অভিযোগ তুলে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। ওই পেজে তাঁর ছবি দিয়ে লেখা হয়েছে, ‘‌ইনি কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। সারদা, রোজভ্যালি কাণ্ডের সিবিআই তদন্ত আটকাতে যে উকিল জনগণের টাকা লুঠ করেছে, তাকে শ্রীরামপুর লোকসভায় একটিও ভোট নয়।’‌ এ ব্যাপারে তৃণমূলের তরফে শ্রীরামপুর থানা এবং নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন কল্যাণ ব্যানার্জির নির্বাচন এজেন্ট দিলীপ যাদব। শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকারের দাবি, ‘‌বিজেপি শ্রীরামপুর’‌ নামে কোনও ফেসবুক পেজ আছে বা কাউকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করা হয়েছে বলে তাঁর জানা নেই।

জনপ্রিয়

Back To Top