দীপেন গুপ্ত, পুরুলিয়া: যারাই রক্ষক, তারা ভক্ষক। কথাটির প্রমাণ মিলল পুরুলিয়ার কাশীপুরে। রবিবার পুরুলিয়ায় ছিল লোকসভা ভোটের ষষ্ঠ দফার নির্বাচন। আর নির্বাচন প্রক্রিয়াকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের তরফে আনা হয়েছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। সেই বাহিনীরই এক জওয়ানের বিরুদ্ধে এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। ভোট প্রক্রিয়া চলার সময় সুরক্ষার দায়িত্বে মোতায়েন থাকা বিএসএফ–এর এক এএসআই ন’‌বছরের এক নাবালিকাকে একা পেয়ে কাশীপুরের আগরডি চিত্রা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ভাটিন এলাকার একটি ঝোঁপে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। নাবালিকার চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে পৌঁছন স্থানীয় বাসিন্দারা ও তঁারাই উদ্ধার করেন ওই নাবালিকাকে এবং অভিযুক্তকে ধরে ফেলেন। তঁারাই অভিযুক্তকে তুলে দেন কাশীপুর থানার পুলিশের হাতে। নাবালিকার ওপর অত্যাচারের ঘটনা জানাজানি হতেই স্থানীয়রা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। ওই বিক্ষোভের জেরে ভাটিন এলাকার বুথে ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়াও প্রায় ঘণ্টা দুয়েক বন্ধ ছিল। ঘটনায় ওই এএসআই–এর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয় সোমবার রাতে। অভিযুক্ত এএসআই–এর নাম রাজবীর সিং। অন্যদিকে, রাজস্থানের বাসিন্দা তথা অভিযুক্ত রাজবীর সিং ওইদিন দুপুরেই এলাকা ছেড়ে ভোটের ডিউটি করতে কলকাতার শহরতলি এলাকায় চলে যাচ্ছিলেন। তখনই তঁাকে আটক করে কাশীপুর থানার পুলিশ। সোমবার রাতেই দায়ের হয় অভিযোগ। ধৃত ওই ব্যক্তিকে মঙ্গলবার আদালতে তোলা হলে তঁাকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়।‌

জনপ্রিয়

Back To Top