তুফান মণ্ডল,গোঘাট: শিশুসন্তানকে কোলে নিয়ে স্বামীর খোঁজে বিহার থেকে ছুটে এসেছিলেন গোঘাটে। কিন্তু স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোক তঁাকে ঘরে ঢুকতে না দেওয়ায় গোঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন বধূ কিরণদেবী। কিরণের বাড়ি বিহারের বেগুসরাইয়ে সিন্ধৌলে। তিনি সেখানে একটি হোটেলে কাজ করেন। তখন সেখানে পরিচয় হয় ওই হোটেলেরই এক কর্মীর সঙ্গে। ওই কর্মীর বাড়ি গোঘাটের কয়রাখালি গ্রামে। 
কিরণ জানান, হোটেলে কাজ করতে করতেই দু’‌জনেরই ভালবাসার সম্পর্ক তৈরি হয়। ২০১৫ সালের ১৫ জানুয়ারি তঁারা রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেন। তঁাদের একটি শিশুপুত্রও আছে। এরপর ওই যুবক নাকি নানারকম অজুহাত দেখিয়ে এবং গ্রামে বাড়ি করার কথা বলে দফায় দফায় প্রায় দেড় লক্ষ টাকা নেয়। কিন্তু গত ২০–‌‌২৫ দিন আগে হঠাৎই বিহার থেকে একেবারেই পালিয়ে আসে সে।  মঙ্গলবার কিরণ তঁার মা এবং এক প্রতিবেশীকে সঙ্গে নিয়ে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির খোঁজে গোঘাটে আসেন। বিভিন্নভাবে খোঁজ খবর করে ওই যুবকের বাড়িতে পৌঁছন। কিন্তু বুধবার সন্ধেয় ওই যুবকের পরিবারের লোক তঁাদের বের করে দেন। পুলিস পৌঁছে প্রতিবেশী একজনের বাড়িতে তঁার রাতটুকু থাকার ব্যবস্থা করে। বৃহস্পতিবার সকালে কিরণ গোঘাট থানায় ওই যুবকের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন।

শিশু কোলে কিরণ দেবী।

জনপ্রিয়

Back To Top