গৌতম মণ্ডল,রায়দিঘি: অবশেষে বিদ্যাধরী নদীতে ট্রলার ডুবির ঘটনায় আরও ৩ মৎস্যজীবীর দেহ উদ্ধার হল। এখনও নিখোঁজ ৪ মৎস্যজীবী। বৃহস্পতিবার সকালে দেহ তিনটি ভাসতে দেখেন অন্য মৎস্যজীবীরা। পরে মৎস্যজীবী ইউনিয়নের ট্রলার ও পুলিশ গিয়ে তিনটি দেহ উদ্ধার করে আনে। মৃত মৎস্যজীবী লুতফর মির (‌৫১)‌, রেণুপদ মুদি (‌৫৫)‌ ও আরেকজনকে শনাক্ত করা যায়নি। তঁারা রায়দিঘির কঙ্কণদিঘির বাসিন্দা। 
এদিন মথুরাপুরের সাংসদ চৌধুরিমোহন জাটুয়া রায়দিঘিতে আসেন। ত্রাণ নিয়ে মহকুমা প্রশাসনের আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন। ছিলেন ডায়মন্ড হারবারের মহকুমাশাসক সুকান্ত সাহা। দেহ উদ্ধারের তদারকি করেন সাংসদ ও মহকুমাশাসক। পরে পরিচয় জানা দুই পরিবারের স্বজনদের হাতে ২ লক্ষ টাকার চেক তুলে দেওয়া হয় সরকারের পক্ষে। অন্যদিকে নামখানার চিনাই নদীতে ডুবে থাকা ট্রলার এফবি চন্দ্রাণী উদ্ধার সম্ভব হয়েছে। তবে পাড়ে নিয়ে আসতে রাত গড়িয়ে যাবে। ট্রলারের মধ্যে নিখোঁজ ৬ মৎস্যজীবীর দেহ আটকে থাকার সম্ভাবনা আছে।

মৃতদের স্বজনের হাতে চেক তুলে দেওয়া হচ্ছে। ছবি:‌ প্রতিবেদক‌

জনপ্রিয়

Back To Top