যজ্ঞেশ্বর জানা:‌ উত্তাল দিঘা। জলোচ্ছ্বাস এসে ধাক্কা মারছে বোল্ডারে। এমনকি মাঝেমধ্যে ভাসিয়ে দিচ্ছে পাড়ও। তবুও এসবের মধ্যেই চলছে ফটো তোলা। প্রশাসনের বারণ রয়েছে। কিন্তু সেই বারণ এবং জলোচ্ছ্বাসকে উপেক্ষা করেই সমুদ্রের একদম ধারে চলে যাচ্ছেন পর্যটকরা। কখনও বসে, কখনও শুয়ে, আবার কখনও ছোট শিশু এবং পরিবারের বাকি লোকজনদের নিয়ে চলছে ফটো তোলা। বিপদ বুঝেও কেবল আনন্দের জন্য এই কাজ করে চলেছেন পর্যটকরা। তাও প্রাণ হাতে নিয়ে। আর তাই দিঘায় একের পর এক ঘটে চলেছে দুর্ঘটনা। প্রাণ হারাচ্ছেন পর্যটকরা। প্রশাসন বারংবার সাবধান করেও পর্যটকদের দূরে সরাতে পারছে না। কোনও কোনও সময় আটকও করা হচ্ছে। কিছু সময় বন্ধ থাকার পর আবারও যে কে সেই। সম্প্রতি এরকমই একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছিল দিঘায়। গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮ নাগাদ স্নানে নেমেছিলেন হুগলির খানাকুল থানার রাজহাটির বাসিন্দা দীপু সেনাপতি এবং তাঁর স্ত্রী। ছেলেকে শ্যালিকা ও তঁার স্বামীর হেফাজতে রেখে অনেকটা গভীরে চলে গিয়েছিলেন দীপু আর মিতা। এরপরই সোয়া ৯টা নাগাদ জোয়ার শুরু হতেই পর্যটকদের সমুদ্র থেকে উঠে যেতে বলা হয়। কিন্তু আচমকাই বড় ঢেউয়ের ধাক্কায় ছিটকে যান তঁারা। স্ত্রীকে ভেসে যেতে দেখে দীপু উদ্ধার করতে যান। এরপর স্ত্রীকে নুলিয়াদের দিকে ঠেলে দিয়েও দীপু নিজেকে বাঁচাতে পারেননি। আরও একটা ঢেউয়ে ভেসে যান তিনি। এরপর দীপুকে উদ্ধার করে নিয়ে আসা হয় দিঘা হাসপাতালে। সেখানে তৎপরতার সঙ্গে চিকিৎসা শুরু হলেও আর শেষ রক্ষা হয়নি। 
তবে এতেও থামেননি পর্যটকরা। শুক্রবার ওল্ড দিঘার হাসপাতাল সমুদ্রঘাটে পর্যটক দম্পতির বেপরোয়া সমুদ্র স্নান ও ছবি তোলার দৃশ্যেই স্পষ্ট তা।  
তথ্য এবং ভিডিও- যজ্ঞেশ্বর জানা‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top