অর্ঘ্য দে,শিলিগুড়ি: দ্বিতীয় দফার ভোটে আজ মূল আকর্ষণ দার্জিলিংকে ঘিরে। পাহাড়ের তিনটি ও সমতলের চারটি বিধানসভা নিয়ে এই কেন্দ্র। তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর অন্যতম সাফল্য পাহাড়ে শান্তি ফিরিয়ে আনা। পর্যটনে এসেছে নতুন মাত্রা। তাই, এই কেন্দ্র এবার শাসকদলের কাছে অন্যতম চ্যালেঞ্জ। তৃণমূলের প্রার্থী করা হয়েছে পাহাড়েরই ভূমিপুত্র অমর সিং রাইকে। পাহাড়ে অশান্তি পাকানোয় মূল অভিযুক্ত বিমল গুরুং এবার পাহাড়ে থাকছেন না। দেড় বছর ধরে তিনি পলাতক। সোমবারও তাঁর আগাম জামিনের আবেদন খারিজ হয়েছে। পাঁচ বছর আগে এই কেন্দ্রে জয়ী হয়েছিলেন বিজেপি–‌র সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া। তাঁকে এবার পাহাড় থেকে প্রার্থী না করে বর্ধমান–‌দুর্গাপুর থেকে প্রার্থী করা হয়েছে। তাঁর বদলে বিজেপি–‌র প্রার্থী দিল্লিনিবাসী রাজু বিস্ত। গুরুংবাহিনী ও জিএনএলএফ তাঁর পাশে দাঁড়ালেও প্রচারে একেবারেই সাড়া ফেলতে পারেননি। মোর্চার মূলস্রোত এখন বিনয় তামাং–‌অনীত থাপাদের সঙ্গে। সেই মোর্চার বিধায়ক অমর সিং রাইকে প্রার্থী করে বড় চমক দিয়েছে তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রী নিজে পাঁচটি জনসভা করেছেন এই কেন্দ্রের জন্য। সবমিলিয়ে অন্য এক মাত্রা পেয়েছে দার্জিলিঙের নির্বাচন। 
পাহাড়–‌সমতল মিলিয়ে ভোট যেন নির্বিঘ্নে হয়, তার জন্য কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। দার্জিলিংয়ে ৬৯ কোম্পানি আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। নিরাপত্তা নিয়ে আগেই বেশ কয়েকবার বৈঠক করেছেন জেলা নির্বাচন আধিকারিক তথা জেলাশাসক জয়শী দাশগুপ্ত। কেন্দ্রীয় পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবেও ঘুরে গেছেন। 
বুধবার সকাল থেকেই দার্জিলিং লোকসভা আসনের জন্য ৭,০৬৫ জন ভোটকর্মী জেলার বিভিন্ন ডিস্ট্রিবিউশন সেন্টার থেকে যাবতীয় সরঞ্জাম নিয়ে রওনা হন নিজ নিজ ভোটকেন্দ্রে। পাহাড়ের তিন কেন্দ্রের (‌দার্জিলিং, কার্শিয়াং, কালিম্পং)‌ পাশাপাশি দার্জিলিং জেলার সমতলে রয়েছে তিনটি বিধানসভা কেন্দ্র। শিলিগুড়ি, মাটিগাড়া–নকশালবাড়ি এবং ফাঁসিদেওয়া। উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া বিধানসভাও পড়ছে এই লোকসভা এলাকায়। সব মিলিয়ে ভোটারের সংখ্যা ১৬,০০,৫৬৪। পুরুষ ভোটার ৮,০৭,১১৮ এবং মহিলা ভোটার ৭,৯৩,৪২৫। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ২১ জন। মোট বুথ ১,৮৯৯। এর মধ্যে প্রায় ৩৫০ বুথকে স্পর্শকাতর বলে ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। সমস্ত স্পর্শকাতর বুথেই থাকছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। পাহাড়–‌সমতল মিলিয়ে ৬৪টি বুথ মহিলা পরিচালিত। এ ছাড়া বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে ওয়েব কাস্টিং, সিসিটিভি সার্ভিলেন্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া ৭১টি ফ্লাইং স্কোয়াড, ২৮টি স্ট্যাটিক সার্ভিলেন্স টিম তৈরি করা হয়েছে। দার্জিলিঙে মূলত চতুর্মুখী লড়াই। নির্দল–‌সহ ১৬ জন প্রার্থী। তৃণমূল কংগ্রেসের অমর সিং রাই, বিজেপি–র রাজু বিস্ত, বামফ্রন্টের সমন পাঠক এবং কংগ্রেসের শঙ্কর মালাকারের মধ্যে মূল লড়াই।

জনপ্রিয়

Back To Top