অনুপম বন্দ্যোপাধ্যায়,সিউড়ি: ঠিক ২ বছর আগে দিল্লির কাছে নয়ডায় পান বিক্রেতা সংগঠনের জাতীয় সভাপতি হরিভাই লালওয়ানির (গুটখা কিং) শবযাত্রায় ব্যান্ড–বাজনা সহকারে তঁার ৪ মেয়ের নাচের ভিডিও দৃশ্য দেশ জুড়ে ভাইরাল হয়েছিল। আর বৃহস্পতিবার সকালে সিউড়ি থেকে বক্রেশ্বর মহাশ্মশান পর্যন্ত ২৫ কিলোমিটারের শবযাত্রায় ছিল ডিজে বক্সে গগনবিদারী গান। ৯৭ বছরের দাদুর শবযাত্রায় ডিজে বক্সের গানের তালে তালে নেচেছেন মৃতের ২ ডজন নাতি–নাতনি। সিউড়ির ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের আনন্দপুরে শঙ্করচরণ মালকে পাড়ার ছেলেমেয়েরা ‘‌ফড়িং দাদু’ বলত‌। জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের দপ্তরে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পদে চাকরি করতেন। 
মৃতের বড় জামাই লালু মাল জানালেন, ওঁর ১১ মেয়ে। কোনও পুত্রসন্তান নেই। এক মেয়ে মারা গেছেন। এক নাতি মারা গেছে। এখন নাতি–নাতনির সংখ্যা ২৪। পৈ–নাতি ১০। বড় মেয়ে নমিতা ও ছোট মেয়ে টুনু–সহ ৭ মেয়ের শ্বশুরবাড়ি এই আনন্দপুরের একই পাড়ায়। শ্বশুর তাই মজা করে বলতেন, ‘‌জামাইপাড়া’‌। নাতিদের পরিকল্পনা ছিল, ১০০ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকলে দাদুকে ঘিরে ধুমধাম করে উৎসব করবে। কিন্তু তার আগেই মারা যাওয়ায় দাদুর শবযাত্রা ঘিরেই ডিজে বক্স বাজিয়ে আনন্দ করেছে নাতি–নাতনিরা। বুধবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয়। বৃহস্পতিবার সকালে বক্রেশ্বর মহাশ্মশানে দেহ সৎকার করা হয়। শবযাত্রায় ছিল ৩টি ছোট লরি। এর মধ্যে প্রথম লরিতে ছিল শুধুমাত্র ডিজে বক্স। 

ডিজে বক্স নিয়ে শবযাত্রা। ছবি: শান্তনু দাস

জনপ্রিয়

Back To Top