সাগরিকা দত্তচৌধুরি- এবার মহকুমা হাসপাতালেও শুরু হল করোনা পরীক্ষা। আরও চারটি ল্যাবরেটরি বাড়ানো হয়েছে। উলুবেড়িয়া সুপারস্পেশ্যালিটি হাসপাতাল, জঙ্গিপুর, এগরা মহকুমা হাসপাতাল এবং কলেজ অফ মেডিসিন সাগরদত্ত হাসপাতালেও শুরু হয়েছে করোনা পরীক্ষা। ল্যাবরেটরি বেড়ে হল ৩৮টি। রাজ্যে পরীক্ষা বাড়তেই পজিটিভ রিপোর্ট বাড়ছে। এদিন নমুনা পরীক্ষা হয় ৯ হাজার ২৫৬টি। এখনও পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ৭৬৯। পজিটিভিটি রেট ২.‌৫৮ শতাংশ।
রাজ্যে নতুন করে ৩৪৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই প্রথম ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে এতজন আক্রান্ত হলেন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৫৩৬ জন। নতুন করে আরও ৬ জনের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। করোনায় এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট মৃত ২২৩। কো–মর্বিডিটির কারণে মৃতের সংখ্যা ৭২। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯০ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন। মোট সুস্থ ১,৬৬৮ জন। নতুন করে ২৪৮ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন ২,৫৭৩ জন। সুস্থতার হার ৩৬.‌‌৭৭ শতাংশ।  সরকারি কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ১৭,৪২১ জন। সরকারি কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়া পাওয়ার সংখ্যা এখনও পর্যন্ত ৪৬,০২৭ জন। হোম কোয়ারেন্টিনে এখন রয়েছেন ১,০৯,৫৫৭ জন। হোম কোয়ারেন্টিন থেকে এখনও মুক্ত হয়েছেন ৮২,৪৩৩ জন।
করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অন্যান্য জেলার তুলনায় কলকাতাতেই বেশি পাওয়া যাচ্ছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে কলকাতারই ৮৭ জন রয়েছেন। উত্তর ২৪ পরগনা ৪৯, হাওড়া ৫৫, উত্তর দিনাজপুর ৪৬, বীরভূম ২৭, নদিয়া ১৫, পূর্ব বর্ধমান ১৬, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ১০ জন–‌সহ আরও বিভিন্ন জেলা থেকে আক্রান্তের সংখ্যার তালিকা বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রকাশিত বুলেটিনে রয়েছে।  
করোনার রিপোর্ট পেতে বিলম্ব হওয়ার অভিযোগ তুলে এদিন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সন্দেহভাজন রোগীর পরিবারের সদস্যরা বিক্ষোভ দেখান সুপারের অফিসের সামনে।  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন।  
বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের কর্মী আবাসনের ৭ জন বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।   আক্রান্তদের আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  সূত্রের খবর, গ্রুপ ডি–র ৩ কর্মীর পরিবারের ৭ জন সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগেও ওই আবাসনের কয়েকজন বাসিন্দা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন।
বেলুড় থানার এক এসআই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁকে গোলাবাড়িতে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদের চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টিন করার ব্যবস্থা করা হয়। এদিন বেলুড় থানা স্যানিটাইজ করা হয়।
তেহট্ট মহকুমা এলাকায় আরও ৩ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এদিন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র তাঁর ফেসবুক পেজে এই তথ্য জানিয়েছেন।  জানা গেছে, তেহট্টের শলুয়ার বাসিন্দা একজন পরিযায়ী শ্রমিক ১৯ মে মহারাষ্ট্র থেকে ফেরেন। করোনা পজিটিভ আসায় তাঁকে কল্যাণী কার্নিভাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্য এক ভিন রাজ্যের শ্রমিক তেহট্টের মোবারকপুরের এবং অপরজন পলাশী পাড়ার পলসন্ডার বাসিন্দা। পলাশীপাড়ার বাসিন্দা কোয়ারেন্টিন সেন্টার থেকে কিছুদিন আগে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। এদিন তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। একথা জানিয়ে মহুয়া মৈত্র বলেন যে সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিক বাইরে থেকে আসছেন তাঁদের বাড়িতে নয়, অবশ্যই কোয়ারেন্টিন সেন্টারে থাকতে হবে।  
কাটোয়া পুরসভার ১১ নং ওয়ার্ডের আদর্শপল্লী পূর্বপাড়াকে কন্টেনমেন্ট জোন ঘোষণা করল প্রশাসন। এই এলাকায় থাকা দুটি সরকারি কার্যালয় মহকুমা ভূমি ও ভূমি সংস্কার এবং কাটোয়া ১নং ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার অফিস বন্ধ করে দেওয়া হল। এলাকার ৪০টি বাড়িকে বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে ফেলা হয়। চলছে জীবাণুমুক্ত করার কাজ।  
কোতুলপুরে একজন এবং ইন্দাসে দুজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বুধবার রাতে এই তিনজনকে সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কোতুলপুরের আক্রান্ত ব্যক্তি কয়েকদিন আগে মহারাষ্ট্র থেকে ফেরার পরই  অসুস্থ হয়ে পড়েন।  এদিকে ‌করোনা–‌আক্রান্ত হয়েছেন দিঘার জাতিমাটি এলাকার ৫০ বছরের এক ব্যক্তি। তিনি চিকিৎসাধীন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।‌
পূর্ব বর্ধমানে গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জন পরিযায়ী শ্রমিকের করোনা পজিটিভ ধরা পড়ল। এখনও পর্যন্ত জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৫৫ জন। এর মধ্যে ২০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।  মহারাষ্ট্র ফেরত পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না ব্লকের এক ও তমলুকের আরও দুই জন পরিযায়ী শ্রমিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মুর্শিদাবাদে নতুন করে আরও সাত জন আক্রান্ত হয়েছেন।

জনপ্রিয়

Back To Top