‌আবির রায়, দুর্গাপুর: অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠল এক বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে। স্ত্রী সন্ধ্যা দাসের অভিযোগে ভিত্তিতে পুলিশ বিজেপি–র শিক্ষক সেলের নেতা চিরঞ্জিত ধীবরকে গ্রেপ্তার করেছে। সোমবার রাতে চিরঞ্জিত স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে খুনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। সন্ধ্যার শ্বশুর, শাশুড়ি ও দেওর ইস্পাত নগরীর শিবাজি রোডের কোয়ার্টারে থাকেন। বেনাচিতির নতুনপল্লীর বাড়িতে একা ছিলেন সন্ধ্যা। দরজার আওয়াজ পেয়ে তিনি দরজা খুলতেই চিরঞ্জিত আচমকা তঁার গায়ে কেরোসিন ছুঁড়ে দেয়। তারপর আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করে। সন্ধ্যার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন ঘরে। খবর পেয়ে ফরিদপুর ফঁাড়ির পুলিশ এসে চিরঞ্জিতকে গ্রেপ্তার করে। মহিলা থানায় অভিযোগ জমা পড়ে। সন্ধ্যার অভিযোগ, চিরঞ্জিতের সঙ্গে বহুদিন ধরে কয়েকজন মহিলার সম্পর্ক রয়েছে। চিরঞ্জিতের মোবাইলে একাধিক আপত্তিকর ছবি ও মেসেজ দেখতে পাওয়া যায়। যেগুলি বিভিন্ন মহিলাকে পাঠানো হয়েছিল৷ পরে সেই ছবি ও মেসেজ ভাইরাল হয়ে যায়। সেই রাগেই খুনের চেষ্টা করা হয় তঁাকে। সন্ধ্যার আরও অভিযোগ, চিরঞ্জিতের বাবা তপন ধীবর সন্ধ্যার কাছে এসে ছেলের মোবাইল ফেরত চাইলে দু’‌জনের মধ্যে বচসা হয়। তঁার গলা টিপে ধরে শ্বশুরও খুনের চেষ্টা করে। চিৎকার, চেঁচামেচি শুনে স্থানীয় বাসিন্দারা তঁাকে উদ্ধার করে। এই ঘটনা নিয়ে দুর্গাপুর থানায় অভিযোগ জানান সন্ধ্যা।

জনপ্রিয়

Back To Top