উদয় বসু- অশান্তির কালো মেঘ কাটতে শুরু করেছে ভাটপাড়ার আকাশ থেকে। সপ্তাহ–শুরুর ব্যস্ততা দেখা গেল ভাটপাড়া–কাঁকিনাড়ার বিস্তীর্ণ এলাকায়। খুলেছে বাজার, দোকানপাট। ভয় কাটিয়ে সে সব জায়গায় ভিড় জমিয়েছে সাধারণ মানুষ। স্বাভাবিক উপস্থিতি অফিস–কাছারিতে। ভাটপাড়া পুরসভায় কর্মব্যস্ততা। দল বেঁধে স্কুলের পথে পড়ুয়ারা। কলেজেও ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতি লক্ষণীয়। রাস্তা জুড়ে বাস ও অন্যান্য যানবাহন। সোমবারের ছবিটা ছিল এরকমই।
ব্যারাকপুর কমিশনারেটে নতুন পুলিশ কমিশনার আসার পর গত ৪৮ ঘণ্টায় কোনওরকম অশান্তির ঘটনা ঘটেনি। এদিন নবান্নে এমনই দাবি করলেন এডিজি (‌আইন–শৃঙ্খলা)‌ জ্ঞানবন্ত সিং। তিনি বলেন, ‘‌এদিন স্থানীয় দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেন ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা। এই বৈঠক নিয়ে তাঁদের কাছ থেকে ভাল প্রতিক্রিয়া মিলেছে। বৈঠকে তাঁরা বিভিন্ন এলাকায় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার দাবি জানান। পুলিশ কমিশনার সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলিতে নিরাপত্তা জোরদার করার আশ্বাস দিয়েছেন তাঁদের। এরপর ভাটপাড়া–কাঁকিনাড়া এলাকার বিভিন্ন ক্লাব, শ্রমিক ইউনিয়ন, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার। মঙ্গলবার থেকে যাতে আরও দোকান, স্কুল–কলেজ খুলে যায় তার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।’‌ রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠকে বসার ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেছেন, ‘‌যাঁরা শান্তি চান, তাঁদের সঙ্গে নিশ্চয়ই আলোচনা করা হবে।’‌
জ্ঞানবন্ত সিং আরও জানান, রবিবার রাত থেকে বিভিন্ন ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ভাটপাড়া থেকে আটক করা হয় ১৪ জনকে। তাদের মধ্যে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের ছেড়ে দেওয়া হয়। এখনও পর্যন্ত মোট ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিভিন্ন অশান্তির ঘটনায় যারা সত্যিই জড়িত তাদেরকেই ধরছে পুলিশ। অন্যদের কোনওরকমভাবে হয়রান করা হচ্ছে না। রবিবার রাতেই ভাটপাড়া–কাঁকিনাড়া এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে ৬০টি তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদিকে, ১১ জুন ভাটপাড়ায় বোমার আঘাতে এক প্রৌঢ়ের মৃত্যুর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত অজয় দাসকে গুয়াহাটি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
বিধানসভার মুখ্য সচেতক তথা বিধায়ক নির্মলকান্তি ঘোষ জানান, এলাকায় শান্তি ফিরিয়ে আনতে এদিন ভাটপাড়া থানায় ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মার সঙ্গে দেখা করে তাঁকে একটি স্মারকলিপি দেয় তৃণমূলের একটি প্রতিনিধিদল। এদিন সকালে বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন পুলিশ আধিকারিকেরা। স্কুলে পঠনপাঠন শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া হয়। কোনও অশান্তি দেখলেই ১০০ নম্বরে ডায়াল করে পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এলাকায় শান্তি–শৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশ কমিশনারের নেতৃত্বে রুট মার্চ করে পুলিশ। মানুষের আস্থা ফিরিয়ে আনতে এটা জরুরি বলে জানিয়েছেন তিনি।

সাইকেল চালিয়ে স্কুলের পথে ছাত্ররা। ভাটপাড়ায়। সোমবার। ছবি:‌ ভবতোষ চক্রবর্তী

জনপ্রিয়

Back To Top