অংশু চক্রবর্তী: বারো বছর পরে আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র রায়ের প্রতিষ্ঠিত বেঙ্গল কেমিক্যালসের অফিসারদের বেতন বাড়ল। কর্মীদের বেতন বৃদ্ধির বিষয়ে বুধবার ৪টি শ্রমিক সংগঠন বেঙ্গল কেমিক্যালসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর পিএম চন্দ্রায়া ও ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (‌এইচআর)‌ তপন চক্রবর্তীর সঙ্গে কর্মীদের দাবি নিয়ে আলোচনা করেন। এই বৈঠকে ছিলেন সাংসদ সৌগত রায়, রাজ্য বিধানসভার মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ। জানা গেছে, এই বৈঠকের ফলাফল অসমাপ্ত রয়েছে। ১৬ নভেম্বর ফের আলোচনা হবে। কর্মীদেরও বেতন বৃদ্ধি হবে। 
গত ২৩ অক্টোবর কেন্দ্রীয় রসায়ন ও সার মন্ত্রকের মন্ত্রী সদানন্দ গৌড়া অফিসার কর্মীদের বেতন বৃদ্ধির বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। সেখানেই এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। ২০০৭ সালে বেতন পুনর্মূল্যায়ন কমিটি তৈরি হয়। অন্যান্য রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার কর্মী অফিসাররা এই সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু বঞ্চিত ছিল বেঙ্গল কেমিক্যাল। এখনকার ম্যানেজিং ডিরেক্টর পিএম চন্দ্রায়া এবং ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (‌এইচআর)‌ তপন চক্রবর্তী বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলেন। অবশেষে সমস্যার সমাধান হয়েছে। এই নতুন বেতনক্রমে অফিসারদের বেতন গড়ে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা বেড়েছে। তাঁরা বকেয়াও পাবেন। 
এখন বেঙ্গল কেমিক্যালসে ৫৮ জন অফিসার রয়েছেন। স্থায়ী কর্মীর সংখ্যা ১৩১ জন। গত তিন বছর ধরে কর্মী ও অফিসারদের নিরলস পরিশ্রমে লাভের মুখ দেখেছে বেঙ্গল কেমিক্যালস। ২০১৮–১৯ অর্থ বছরে এই সংস্থার লাভ হয়েছে ২৫.‌৫ কোটি টাকা। এই সংস্থার বিভিন্ন জিনিস ন্যাপথালিন থেকে ফিনাইল, বিভিন্ন ওষুধের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে। কারণ, এই সংস্থার প্রতিটি জিনিসের গুণগত মান খুব ভাল। বিভিন্ন রাজ্য এই সংস্থার তৈরি জিনিস কিনছে। আপাতত কর্মীদের বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে। আশা করা যাচ্ছে তা ফলপ্রসূ হবে।‌‌‌

আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র রায়ের মূর্তি। ফাইল ছবি

জনপ্রিয়

Back To Top