চন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, বোলপুর, ১০ সেপ্টেম্বর- বীরভূম জেলায় অস্ত্রবিহীন মহরম করার জন্য মৌলবিদের নিয়ে বৈঠক করলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। জেলা কার্যালয়ের বৈঠকে অনুব্রতর আবেদনে সাড়া দিয়ে মৌলবিরা জানান, গ্রামে গ্রামে মসজিদে, মুসলিম মহল্লায় —সব জায়গাতেই অস্ত্রবিহীন মহরম করার জন্য মহরম কমিটিগুলোকে বিষয়টি নিয়ে বোঝাবেন। সকলকে তঁারা বলবেন, ইসলাম ধর্মের মহরমে তলোয়ারের মতো অস্ত্র নিয়ে মহরম করার কোনও বিধি নেই। তাই এমন মিছিল যঁারা করেন, তঁারা ভুলই করেন।
শুধু তাই নয়, এ দিন অনুব্রত মণ্ডল সকলকে সতর্ক করে দিয়ে জানান, রাজ্যে বিজেপি দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করছে। সে কথা সকলে যেন মাথায় রাখবেন। তাদের প্ররোচনায় পা না দেওয়ারও পরামর্শ দেন তিনি। তিনি বলেন, ‘‌বিজেপি একটি সাম্প্রদায়িক দল। তারা ধর্মের নামে দাঙ্গা লাগিয়ে ফায়দা তুলতে চাইছে। কোনওভাবেই এটা করতে দেওয়া যাবে না। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য রয়েছে বীরভূম–সহ গোটা রাজ্যের। সেই ঐতিহ্যকে নষ্ট হতে দেওয়া যাবে না। আমাদের সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।’‌ এদিন তিনি আরও বলেন, ‘‌মনে রাখতে হবে মহরম থেকে দুর্গাপুজো —সবটাই হিন্দু–মুসলমান দুই সম্প্রদায়েরই উৎসব। গোটা রাজ্যে আমরা সকলে মিলিত ভাবে এই উৎসব পালন করে থাকি।’‌
তিনি আবেদন করেন, ‘‌মহরমে অস্ত্র ছেড়ে সুন্দর সুন্দর তাজিয়া বানান, যা দেখে সকলে অভিভূত হয়ে যাবে।’‌ এদিনের সভায় বীরভূম জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের সভপতি শেখ কাজি, বিধায়ক মঈনুদ্দিন, আব্দুল রহমান, বিধায়ক শেখ শাহনাজ ছাড়াও বিভিন্ন ব্লক থেকে আসা হাজি সাহেবরা অস্ত্রবিহীন মহরমের পক্ষে বক্তব্য রাখেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা ও জেলা সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী।                    

   জেলা কার্যালয়ের ৈবঠকে অনুব্রত। ছবি: বাপি রহমান

জনপ্রিয়

Back To Top