বিজয়প্রকাশ দাস ও তুফান মণ্ডল, বর্ধমান ও গোঘাট, ৩ জুন- একশো দিনের কাজে পরিযায়ী শ্রমিকদের অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য গ্রাম পঞ্চায়েত ও পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদকে নির্দেশ দিলেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। বুধবার সংস্কৃতি লোকমঞ্চের অ্যানেক্স হলে এক সাংবাদিক বৈঠকে মন্ত্রী এই নির্দেশ দেন। অন্যদের মধ্যে ছিলেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, সহ–সভাধিপতি দেবু টুডু ও পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ উত্তম সেনগুপ্ত প্রমুখ।
স্বপন দেবনাথ বলেন, ‘‌যে সব শ্রমিক বাইরে গিয়েছিলেন জরির কাজ এবং সোনার কাজ করতে, তাঁদের এখানে কাজের ব্যবস্থা করবার জন্য জেলাশাসককে বলা হয়েছে প্রস্তাব পাঠানোর জন্য। ক্লাস্টারের মাধ্যমে তাঁদের জন্য কর্মসংস্থানের কথা ভাবা হচ্ছে।’‌ তিনি তাঁত শিল্পীদের জন্যও ক্লাস্টারের কথা ভাবছেন। তিনি বললেন, ‘‌যাঁদের জবকার্ড নেই, তাঁরাও যদি চান কাজ পাবেন। এছাড়া যাঁদের জবকার্ডের রিনিউয়াল করা নেই, তাঁরা রিনিউয়ালের আবেদন করলেও পাবেন।’‌ এছাড়াও ফর্ম ফিলআপ করলে নতুন জবকার্ড পাবেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।
অন্যদিকে, গোঘাটে পরিযায়ী শ্রমিকদের হাতে ইতিমধ্যেই জবকার্ড তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। বুধবার গোঘাট পঞ্চায়েত অফিসে এই কর্মসূচির সূচনা করেন গোঘাট–১ নম্বর ব্লকের বিডিও সুরশ্রী পাল। এছাড়াও ছিলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মনোরঞ্জন পাল, কর্মাধ্যক্ষ নারায়ণ পাঁজা প্রমুখ। গোঘাট ছাড়াও এই ব্লকের বাকি ৬টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাতেও এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। বিডিও সুরশ্রী পাল বলেন, ‘‌রাজ্য সরকার চাইছে, যে সব পরিযায়ী শ্রমিক অন্য রাজ্য থেকে এসেছেন, তাঁদের কিছু একটা কাজের ব্যবস্থা করে দিতে। কারণ তাঁরা সবাই এখন কাজহারা। তাই রাজ্য সরকারের নির্দেশে এবং জেলাশাসকের আদেশে এই জবকার্ড প্রদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। এই পর্যায়ে মোট ৩০০ জন পরিযায়ী শ্রমিকের হাতে জবকার্ড তুলে দেওয়া হল। এর ফলে তাঁরা আর্থিকভাবে সুরক্ষিত হবেন।’‌ ‌

 

পরিযায়ীদের হাতে জবকার্ড তুলে দেওয়া হচ্ছে। ছবি: তুফান মণ্ডল

জনপ্রিয়

Back To Top