আজকালের প্রতিবেদন, পূর্ব বর্ধমান: বাংলার আশ্চর্য অবিষ্কার। এমন চাল, যা গরম জলে দিয়ে আর ফোটাতে হবে না। অপেক্ষা মাত্র আধ ঘণ্টার। ঠান্ডা জলে এই চাল ভিজিয়ে রাখুন শুধু। তৈরি হয়ে যাবে ভাত!‌ এমনই উন্নত মানের চাল উৎপাদন শুরু হয়ে গেছে রাজ্যে। নাম দেওয়া হয়েছে ‘‌কমল’‌। উত্তর আর দক্ষিণ, দুই ২৪ পরগনায় এই কমল চালের চাষ হচ্ছে এখন নিরীক্ষামূলক ভাবে। চাষ হচ্ছে ফুলিয়ার কৃষি–‌প্রশিক্ষণ কেন্দ্রেও। কৃষকদের মধ্যে ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে এই ‘‌কমল’‌ চাল। 
মঙ্গলবার মাটি উৎসবের উদ্বোধনী মঞ্চে রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আশিস ব্যানার্জি এই চাল তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির হাতে। এই চালের গুণ শোনার পর আপ্লুত মুখ্যমন্ত্রী। তিনি সেই চাল দেখিয়ে বলেন, ‘‌এই চাল আমরা তৈরি করেছি। এটা ঠান্ডা জলে ভিজিয়ে রাখলেই খাবার মতো হয়ে যাবে। ঠিক চিঁড়ে ভিজিয়ে খাবার মতো। এই চালের নাম  কমল চাল। এই চাল সিদ্ধ করতে হয় না। আমরা যে–‌রকম চিঁড়ে ভিজিয়ে রাখি, এই চালটাও আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হয়। এটা নাকি গুড় দিয়ে, দই দিয়ে খাওয়া যায়। চিঁড়ে যেভাবে খাই, সেভাবেই খাওয়া যাবে।’‌
তিনি বলেন, ‘‌মোটা ভাত খাব, মোটা রুটি খাব। তা‌ও কারও কাছে আত্মসমর্পণ করব না। কারও কাছে মাথা বিকিয়ে দেব না। এটা আমাদের শপথ হোক নতুন বছরে।’‌ মাটি উৎসবে নদিয়ার ফুলিয়ার একটি স্টলে কমল চাল প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে। লাল–কালো চাল এবং কমল চাল নিয়ে পরীক্ষা চলছে। কৃষিমন্ত্রী আশিস ব্যানার্জি জানান, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পরীক্ষামূলক চাষ করা হচ্ছে। ফুলিয়ায় এগ্রিকালচার ট্রেনিং সেন্টারেও হচ্ছে। বিভিন্ন ফার্মে বীজ দেওয়া হচ্ছে পরীক্ষা করে দেখার জন্য।

 

‘‌কমল’‌​ চাল হাতে বর্ধমানে মুখ্যমন্ত্রী। ছবি: বিজয়প্রকাশ দাস

জনপ্রিয়

Back To Top