দেবাশিস দত্ত
প্রশ্ন: অধিনায়ক হলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে কাদের নিয়ে টেস্টে নামতেন?‌
আজহারউদ্দিন:‌ আমাদের সময় স্পিনারদের ওপর বেশি নির্ভর করতে হত। তখন ভারতীয় দলে অনিল কুম্বলে, বেঙ্কটপতি রাজু, রাজেশ চৌহান, মনিন্দর সিংরা ছিল। ওরা বলে বলে ম্যাচ জিতিয়েছে। তাই জোরে বোলারদের দিকে সেভাবে নজর দিতে হয়নি। এখন এক স্পিনার খেলানো হলেও ভারত ২–‌০ জিতবে। মানে জেতা উচিত।
প্রশ্ন: বিরাট কোহলিদের ক’‌জন স্পিনার নিয়ে খেলা উচিত?‌
আজহারউদ্দিন:‌ হার্দিক পান্ডিয়া নেই। ওর জায়গায় অলরাউন্ডার কোটায় রবীন্দ্র জাদেজা খেলবে। ৭ নম্বরে ব্যাট করতে আসবে। বাকি চারটে জায়গার মধ্যে বিরাট ৩ জন জোরে বোলার খেলাতে চাইবে মনে হয়। বুমরা, ইশান্ত এবং সামির সঙ্গে অশ্বিনকে দলে রাখা উচিত। দেখা হলে বিরাটকে বলব, কুলদীপকে বসিয়ে অশ্বিনকে খেলাও।
প্রশ্ন: তাহলে কুলদীপকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধেও দলের বাইরে রাখতে হবে?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ অশ্বিনের জায়গায় কুলদীপকে খেলানো উচিত হবে না। এত বড় ম্যাচ উইনারকে রিজার্ভ বেঞ্চে রাখাটা ঠিক নয়। কুলদীপ অপেক্ষা করুক। 
প্রশ্ন: রোহিত শর্মাকে শুরুতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত ঠিক?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ উপায় নেই। নয়তো একজন প্রতিভাবান ব্যাটসম্যানকে ড্রেসিংরুমে বসে থাকতে হয়। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে রোহিত ওপেন করেছে। ততটা অসুবিধা হবে না। বীরেন্দ্র শেহবাগ যেভাবে মিডল অর্ডার থেকে ওপেন করেছিল, অনেকটা সেভাবেই রোহিতকে ট্রাই করা হচ্ছে। ওপেনারদের একটা নির্দিষ্ট মেন্টাল অ্যাডজাস্টমেন্ট করতে হয়। সবাই ওপেন করতে পারে না। আশা করব রোহিত সুযোগটা কাজে লাগাতে প্রয়োজনীয় বোঝাপড়া করে নেবে নিজের সঙ্গে।
প্রশ্ন: কে এল রাহুলের বাদ পড়াটা?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ অনেক আগেই বাদ দেওয়া উচিত ছিল। প্রচুর সুযোগ পেয়েছে। মায়াঙ্ক আগরওয়াল, শুভমান গিল, পাঞ্চাল, ঈশ্বরণরা প্রচুর রান করছে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে নইলে আর কোন দলের বিরুদ্ধে নতুন মুখদের দেখা হবে?‌
প্রশ্ন: হনুমা বিহারীকে কেমন লাগছে?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ মেন্টালি খুব স্ট্রং। প্রচুর পরিশ্রম করেছে। ওকে মিস্টার ডিপেন্ডেবল বলা শুরু হল বলে।
প্রশ্ন: উইকেটকিপিং?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ শুধু উইকেটরক্ষক হিসেবে ঋদ্ধিমান অনেকটা এগিয়ে। অভিজ্ঞ। ঋষভ পন্থকে বাদ দেওয়ার পক্ষে প্রধান যুক্তি পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যাট করতে না পারা। ঋষভকে আরও একটা সুযোগ দিলে বলব না বিশাল ভুল। যদি দেখা যায়, ঋদ্ধিমানকে প্রথম এগারোয় রাখা হল, তাহলে বলব ঋদ্ধি হারানো জায়গা ফেরত পেল। খারাপ ফর্ম নয়, চোট পেয়ে ঋদ্ধি ছিটকে গিয়েছিল। এখন তো দলে ফিরিয়ে নিতেই হবে। সবাই হোঁচট খাচ্ছে ঋষভের ওই দুটো সেঞ্চুরির কারণে। ব্যাপারটা এই মুহূর্তে আসলে ফিফটি ফিফটি।
প্রশ্ন: আপনি হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হওয়ার দৌড়ে?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ অবশ্যই। ২৭ তারিখ ভোট। সেজন্য আপাতত এখন হায়দরাবাদেই থাকছি।
প্রশ্ন: আর কোন ক্রিকেটার এই নির্বাচনে শামিল হচ্ছেন?‌
আজহারউদ্দিন:‌‌ বেঙ্কটপতি রাজু।
প্রশ্ন: ফিরোজ শা কোটলার নামকরম হয়ে গেল অরুণ জেটলির নামে!
আজহারউদ্দিন:‌‌ বিরাট কোহলির নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ হলে ভাল হত। দুর্দান্ত ব্যাটিং করছে। দুনিয়ার একনম্বর ব্যাটসম্যান। এখন ভারতীয় ক্রিকেট মানেই কোহলি। জেটলি সাহেব দিল্লির ক্রিকেটের জন্য অনেক কিছু করেছেন ঠিকই। তবে ক্রিকেটার বিরাট কোহলির ভূমিকা অনেক উজ্জ্বল নয় কি?‌ এটা অবশ্য আমার ব্যক্তিগত মতামত।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top