আজকালের প্রতিবেদন: সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মাটিতে অাইপিএলের জন্য অনুশীলনে নামার আগে ভারতীয় ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফদের অন্তত পাঁচ বার কোভিড টেস্টের ফল নেগেটিভ হতে হবে। তবেই তাঁরা অনুশীলনে নামতে পারবেন। পাশাপাশি আইপিএল চলাকালীন পাঁচ দিন অন্তর অন্তর বিরাট কোহলি, মহেন্দ্র সিং ধোনিদের কোভিড পরীক্ষা করা হবে। যদি কোনও বার কোভিড পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে তাহলে ততক্ষণাৎ সংশ্লিষ্টকে চলে যেতে আইসোলেশনে। কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে দু’বার কোভিড পরীক্ষা করা হবে। তারপর সেই ফল নেগেটিভ হলে তবেই সেই ক্রিকেটার দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে পৌঁছে এক সপ্তাহের কোয়ারেন্টিনে থাকার সময়ে ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফদের অন্তত তিনবার কোভিড টেস্ট হবে। রিপোর্ট নেগেটিভ হলেও ‘বায়ো বাব্‌ল’–এ ঢুকতে পারবেন ক্রিকেটাররা। সেখানে পৌঁছোনোর পর ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফরা এক সপ্তাহ হোটেলে কেউ কারও সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না। তিনবার কোভিড টেস্টে পাশ করার পরই সাক্ষাৎ করা সম্ভব হবে।
এ তো গেল ভারতীয় ক্রিকেটারদের কথা। আইপিএলে খেলা বিদেশি ক্রিকেটারদের জন্য কী পরামর্শ থাকছে? জানা গেছে, দুবাই, আবু ধাবি উড়ে যাওয়ার আগে প্রত্যেক বিদেশি ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফকে ১৪ দিনের ব্যবধানে দু’বার কোভিড পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। তারপরই তারা মধ্যপ্রাচ্যে উড়ে যাওয়ার সম্মতি পাবেন। নইলে নয়। ভারতীয় বোর্ডের নির্দেশ অনুযায়ী কোনও দলই ২০ অাগস্টের আগে দুবাই, আবু ধাবি যেতে পারবে না।
সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে সেপ্টেম্বর থেকেই সব খেলায় মাঠে ৫০ শতাংশ দর্শক যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কোভিড–প্রোটোকল মেনেই। কিন্তু আইপিএলের প্রথমার্ধে থাকছে না কোনও দর্শক। কেন? দুবাইয়ের ক্রীড়া মন্ত্রকের সিনিয়র আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভারতীয় বোর্ডই এই মুহূর্তে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চায় না। তাই আরব আমিরশাহি সরকার অনুমতি দিলেও ভারতীয় বোর্ড তাতে রাজি নয়। তবে, ফ্রাঞ্চাইজি এবং আরব আমিরশাহির তিন কেন্দ্র দুবাই, আবু ধাবি এবং শারজা কর্তৃপক্ষ চাইছে মাঠে ৫০ শতাংশ দর্শক ঢোকাতে। এর ফলে যতটা সম্ভব টিকিট বিক্রির লভ্যাংশ পাওয়া যাবে। বিষয়টি ভাবছে ভারতীয় বোর্ড। পাশাপাশি তাকিয়ে রয়েছে সেপ্টেম্বরে দুবাইয়ের সব বড় ফুটবল প্রতিযোগিতা ইউএই প্রো ফুটবল লিগের দিকে। যে প্রতিযোগিতায় খেলে আল জাজিরা, আল আখ‍লে এবং শারজা ক্লাবের মতো বড় বড় দলগুলো। সেখানে কোভিড–প্রোটোকল মেনে ২ মিটার দূরত্বে বসানো হবে দর্শকদের। গ্যালারিতে দর্শকের পেছনে দুটো সারি এবং পাশে দুটো আসন খালি রাখা হবে। সঙ্গে থাকবে স্যানিটাইজার এবং থার্মাল গানের পরীক্ষা। সেই প্রতিযোগিতায় দর্শকরা নিরাপদ থাকলেই আইপিএলের শেষ দিকে মাঠে দর্শক ঢোকার অনুমতি দেবে ভারতীয় বোর্ড।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top