দেবাশিস দত্ত
শুরুতে ফাঁদ। শেষেও থাকবে ফাঁদ।
ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচির দিকে তাকালে এই চোরা ফাঁদ অনুভব করা যায়। ৭১ বছর পর ভারতের কাছে প্রথম টেস্ট সিরিজে হারার প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য নিঃশব্দে কতটা তৈরি হয়ে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, তা–‌ও কিন্তু ঘোষিত সূচির মধ্যেই পরিষ্কার। এটাই পেশাদারি মনোভাব। যতই আইপিএল চলাকালীন স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নাররা সুবোধ বালকের মতো আচরণ করে থাকুন না কেন, সিরিজ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্রমশ মুখোশ খুলে নিজেদের দেশকে জেতানোর জন্য আক্রমণাত্মক মনোভাব দেখাতে শুরু করবেন। ইয়ান চ্যাপেল, অ্যালান বর্ডার, রিকি পন্টিংয়ের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটাররা, আইপিএল শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে টিম ইন্ডিয়া সম্পর্কে টিকা–‌টিপ্পনীর বন্যা বইয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন, এ ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই।
সূচিতে ফেরা যাক। এই শতাব্দীর শুরু থেকেই ভারতীয় দল ব্রিসবেনে প্রথম টেস্ট খেলতে চায়নি। দু’‌বছর আগে বিরাট কোহলিরা ব্রিসবেনে টেস্ট খেলেননি। এবারের সূচিতে বিরাটদের খেলতে হবে ব্রিসবেনে শেষ টেস্ট ম্যাচ। ভারত চায়নি ব্রিসবেনে খেলতে। অন্তত শুরুতে তো নয়ই। এই ফাঁদে ভারত পা দিতে চাইছে না। ভাল কথা। কিন্তু ফাঁদ তো থেকেই গেল। এটাই তো চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজের শেষ টেস্ট  ব্রিসবেনে ফেলেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ব্রিসবেন মানেই গনগনে উইকেট। এখন পার্থের চেয়েও গতিময় উইকেট। এমন উইকেটে হ্যাজেলউডরা মারাত্মক হয়ে উঠতে পারেন জেনেই তো ব্রিসবেনে টেস্ট খেলতে চেয়েছে অস্ট্রেলিয়া।
এটা আসলে ২ নম্বর ফাঁদ। প্রথম ফাঁদ হল, সিরিজের শুরুতেই গোলাপি টেস্ট দেওয়া। এই গোলাপি টেস্টে স্টিভ স্মিথের অস্ট্রেলিয়া যে ফেবারিট, তা তো অতি বড় ভারতীয় সমর্থকও মেনে নেবেন। উদ্দেশ্যটা পরিষ্কার‌, যে কোনও মূল্যে সিরিজের প্রথম টেস্ট জেতা। ০–‌১ ব্যবধানে পিছিয়ে যাওয়া দল কি একই উদ্যমে বাকি তিনটে টেস্ট খেলতে পারবে?‌ বিরাটরা অবশ্যই চেষ্টা করবেন উদ্দীপ্ত ক্রিকেট খেলে এই ফাঁদ থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে। সিরিজ শুরু হওয়ার আগেই কিন্তু সিএ কর্তারা নিঃশব্দে স্টিভ স্মিথদের জেতানোর জন্য লড়াই শুরু করে দিয়েছেন। এডিলেডে অনুষ্ঠেয় গোলাপি টেস্টের শুরুতে থাকছে প্রথম ফাঁদ। এবং বাড়ি ফেরার আগে ব্রিসবেনের গতিময় টেস্টে থাকবে দ্বিতীয় ফাঁদ। কঠিন চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করার জন্যই বিরাটদের এবার অস্ট্রেলিয়ায় দু’মাস কাটাতে হবে।‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top