‌সংবাদ সংস্থা: অথর্ব আঙ্কোলেকারের পাঁচ উইকেটে ভর করে কম রানের পুঁজি নিয়েও টানা দু’‌বার অনূর্ধ্ব–১৯ এশিয়া কাপ জিতে নিল ভারত। টানটান উত্তেজনার ম্যাচে ফাইনালে বাংলাদেশকে হারিয়ে দিল ৫ রানে। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে রীতিমতো বিপদে পড়ে যায় ভারত। বাঁ হাতি পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরি (‌৩/‌১৮)‌ এবং অফ–স্পিনার শামিম হোসেনের (‌৩/‌৮)‌ দাপটে ভারত একের পর এক উইকেট হারাতে থাকে। মাত্র ৮ রানের মধ্যে সাজঘরে ফিরে যান দলের প্রথম তিন ব্যাটসম্যান।
অবশেষে হাল ধরেন অধিনায়ক ধ্রুব জুরেল (‌৩৩)‌ এবং শাশ্বত রাওয়াত (‌১৯)‌। এঁরা দু’‌জন ফিরে যাওয়ার পর শেষদিকে নেমে করণ লালের (‌৩৭)‌ ঝোড়ো ইনিংসের সৌজন্যে শতরানের গণ্ডি পেরোয় ভারত। ব্যাট করতে নেমে ভারতের আকাশ সিং (‌৩/‌১২)‌ এবং অথর্ব আঙ্কোলেকারের (‌৫/‌২৮)‌ দাপটে বাংলাদেশের কোনও ব্যাটসম্যানই দাঁড়াতে পারেননি। মাত্র ১০১ রানেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। সর্বোচ্চ রান আকবর আলির (‌২৩)‌।
ম্যাচের সেরা হয়েছেন আঙ্কোলেকারই।‌‌ নিম্ন–মধ্যবিত্ত ঘর থেকে উঠে আসা আঙ্কোলেকার ৯ বছর আগে বাবাকে হারান। মা সরকারি বাসের কনডাক্টর। প্রায় একাই বড় করেছেন ছেলেকে। রিজভি কলেজের বাণিজ্যের ছাত্র আঙ্কোলেকারের ক্রিকেট–প্রেম বাবার হাত ধরেই। বাবা বিনোদই ছোটবেলায় আঙ্কোলেকারকে ক্রিকেট ব্যাট উপহার দেন। ২০১০–এ খোদ শচীন তেন্ডুলকারকে বলের জাদুতে দেখিয়ে মুগ্ধ করেন আঙ্কোলেকার। শচীন তাঁকে একজোড়া সই করা গ্লাভসও উপহার দেন।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top