সংবাদ সংস্থা, দিল্লি: তিনি বল হাতে নেওয়া মানেই বিপক্ষ ব্যাটসম্যানের বুক দুরুদুরু। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে দু’ইনিংস মিলিয়ে মহম্মদ সামির সংগ্রহ ৭ উইকেট। দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি বোলার ডেল স্টেন বলে দিয়েছেন এই মুহূর্তে বিশ্বের এক নম্বর জোরে বোলার সামিই। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দিন–রাতের ঐতিহাসিক টেস্টের আগে বাংলার বোলার জানালেন, ব্যাটসম্যানকে ধন্দে ফেলার জন্য তিনি ঘনঘন লেংথ পরিবর্তন করেন। এক সাক্ষাৎকারে সামি বলেছেন, ‘‌উইকেট কেমন আচরণ করছে, সেটা বোলারদের খেয়াল রাখা উচিত। যখন দেখি উইকেট মন্থর, ব্যাটসম্যান স্বচ্ছন্দে খেলতে পারছে না, তখনই বারবার লেংথ বদলাই ওদের ধন্দে ফেলার জন্য।’‌ 
ইন্দোর টেস্টে দ্বিশতরান করেছিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। কিন্তু ইডেন টেস্টের আগে মায়াঙ্ককে সতর্ক করে দিলেন সুনীল গাভাসকার। তঁার কথায়, ‘‌ও (‌মায়াঙ্ক)‌ টেস্ট ক্রিকেট উপভোগ করছে। এটা ওর প্রথম বছর। আশা করব, দ্বিতীয় বছরেও ও রান করবে। বিপক্ষের কাছে কিন্তু ওর সম্পর্কে এবার অনেক বেশি তথ্য থাকবে। তবে ও খুব সুন্দর ব্যাট করছে। সামনের এবং পেছনের পায়ে নড়াচড়া দারুণ। যা ওকে ছন্দ এনে দিয়েছে, আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে।’‌ অন্যদিকে, ভারতের বোলিং আক্রমণকে ‘‌সম্পূর্ণ’‌ আখ্যা দিয়েছেন গৌতম গম্ভীর। তিনি বলেছেন, ‘‌বিপক্ষে কোনও দলের রয়েছে ভাল জোরে বোলার, কোনও দলের ভাল স্পিনার। কিন্তু ভারতের রয়েছে দু’‌জন দক্ষ স্পিনার এবং তিনজন দক্ষ সিমার। পাশাপাশি, যশপ্রীত বুমরা এবং ভুবনেশ্বর কুমারও রয়েছে। যারা খেলছে না প্রথম একাদশে। সুতরাং ভারতের রয়েছে যথার্থ পাঁচ সিমার। আর কুলদীপও রয়েছে। সবমিলিয়ে আটজন দক্ষ বোলার। ঠিক এই কারণেই গত দু’‌বছরে ভারতীয় দল অনেকবার বিপক্ষকে অলআউট করতে পেরেছে।’‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top