‌আজকালের প্রতিবেদন: ইউএস ওপেনের ফাইনালে মহাবিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন সেরেনা উইলিয়ামস। আম্পায়ারের সঙ্গে তর্কাতর্কি করে, তাঁকে চোর বলে অভিহিত করেছেন। টেনিস–‌দুনিয়া এই বিষয়ে দ্বিমত। কেউ সেরেনার আচরণকে সমর্থন করেছেন, কেউ আবার পাশে দাঁড়িয়েছেন চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস র‌্যামোসের। বিলি জিন কিং যেমন সরাসরি সেরেনার পাশে দাঁড়িয়ে বলেছেন, ‘‌যে–কোনও সময় কোচিং চালু করা উচিত টেনিসে। তা হয়নি। ফলে কোচের আচরণের জন্য একটা প্লেয়ারকে তার বলি হতে হল। একজন মেয়ে আবেগপ্রবণ হলে সে চেঁচাতেই পারে। তার জন্য শাস্তি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু একজন পুরুষ এটা করলে তা নিয়ে কোনও প্রতিবাদ করা হয় না। ধন্যবাদ সেরেনা, এই দ্বিচারিতাকে তুমি আমাদের সামনে তুলে এনেছ। আরও বেশি প্লেয়ারের এগিয়ে আসা উচিত।’‌ ক্রিস এভার্টের মতে, ‘বাইরে থেকে কোচিং করানো বৈধ নয় মানছি। কিন্তু সবাই কোচের সাহায্য নেয়। কার্লোসের উচিত ছিল সেরেনাকে আগেই এ ব্যাপারে সতর্ক করা, তাহলে ব্যাপারটা এতদূর গড়াত না।’‌ অ্যান্ডি মারে আবার দু’‌রকম কথা বলেছেন। প্রথমে টুইট করেন, ‘‌আমার দেখা সব থেকে জঘন্য রেফারিং।’‌ পরে নিজেকে শুধরে বলেন, ‘‌আমি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম। আম্পায়ারের ক্ষমতা রয়েছে সতর্ক করে দেওয়ার। আম্পায়ারকে এর আগে কোচের ভূমিকা নিতে দেখেছি। সেই একই টুর্নামেন্টে কোচিংয়ের জন্য একজন প্লেয়ারের পয়েন্ট কাটা হল। একটা ধারাবাহিকতা তো থাকা উচিত।’‌ ভারতের মহেশ ভূপতি বলেছেন, ‘‌আচ্ছা, এরকম অপরাধের জন্য কোচদের স্ট্যান্ড থেকে কয়েক সপ্তাহের জন্য নির্বাসিত করে দিলে হয় না?‌’‌‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top