আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শচীন তেন্ডুলকার এবং রাহুল দ্রাবিড়। একজনকে বলা হয় ‘‌ক্রিকেটের ভগবান’‌, অন্যজনকে ডাকা হয় ‘‌দ্য ওয়াল’‌ নামে। আর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হাইভোল্টেজ ম্যাচে ওয়ানডেতে দু’‌জনেরই রেকর্ড ভেঙে গেল। একদিকে শচীনের রেকর্ড ভাঙলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। অন্যদিকে, দ্রাবিড়ের রেকর্ড ভাঙলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। 
নটিংহ্যামেই হয়ে যেত রেকর্ড। কিন্তু বৃষ্টিতে নিউজিল্যান্ড ম্যাচ ভেস্তে যাওয়ায় সেটা আর হয়নি। তবে পাকিস্তান ম্যাচে দুরন্ত ব্যাটিং করলেন বিরাট। ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ৭৭ রান। আর তাতেই টপকে যান শচীনকে। একদিনের ক্রিকেটে দ্রুততম ১১ হাজার রান করার রেকর্ড এখন বিরাটের হাতেই।  মাত্র ২২২ ইনিংসে ১১ হাজার রানের ক্লাবে ঢুকলেন বিরাট। শচীন এই কৃতিত্ব অর্জন করেছিলেন ২৭৬ ইনিংসে। এর পাশাপাশি বিশ্ব ক্রিকেটের অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করলেন তিনি। ভারতীয়দের মধ্যে তৃতীয়। বিরাটের আগে এই কৃতিত্ব ছিল কেবল দুই ভারতীয়ের। শচীন তেন্ডুলকার (‌১৮,৪২৬ রান)‌ এবং সৌরভ গাঙ্গুলির (‌১১,৩৬৩ রান)‌।
এদিকে, রবিবার ভারত–পাকিস্তান ম্যাচে বল গড়াতেই নয়া রেকর্ড গড়লেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। টপকে গেলেন ‘‌মিস্টার ডিপেন্ডেবল’‌ রাহুল দ্রাবিড়কে। দেশের জার্সি গায়ে ৩৪১ নম্বর ওয়ানডে ম্যাচ খেলছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। ভারতীয় হিসেবে তাঁর সামনে শুধু শচীন তেণ্ডুলকর। ৪৬৩টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন মাস্টার ব্লাস্টার। ভারতীয় দলের হয়ে ৩৪০টি ওয়ানডে খেলার রেকর্ড রয়েছে দ্রাবিড়ের ঝুলিতে। এদিন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত-পাক ম্যাচের টসের পরই বিরল রেকর্ডের মালিক হয়ে গেলেন তিনি। দেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে খেলার তালিকায় শচীন, ধোনি এবং দ্রাবিড়ের পরই রয়েছেন প্রাক্তন অধিনায়ক মহম্মদ আজহারউদ্দিন (৩৩৪), সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (৩০৮) এবং সদ্য ক্রিকেটকে বিদায় জানানো যুবরাজ সিং (৩০১)। তিনটি এশিয়া একাদশ মিলিয়ে এদিন নিজের ৩৪৪তম একদিনের ম্যাচ খেলছেন ধোনি। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হাইভোল্টেজ ম্যাচে ব্যাট করতে নামার আগেই নজির গড়ে ফেললেন মাহি। যদিও ম্যাচে ব্যাট হাতে কেবল এক রানই করেন তিনি। 
তবে কোহলি–ধোনি ছাড়া রেকর্ড করেছেন রোহিতও। এদিন ১৪০ রান করায় কোহলির পর দ্বিতীয় ভারতীয় হিসেবে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শতরান করার নজির গড়লেন এই মুম্বইকর।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top