দেবাশিস দত্ত: নতুন স্টাইল। কপিলদেব, অংশুমান গায়কোয়াড়রা টিম ইন্ডিয়ার চিফ কোচ বেছে নিতে গিয়ে রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে মাইক হেসন এবং টম মুডিকে বেছে নিয়েছিলেন যথাক্রমে এক, দুই ও তিন নম্বর পছন্দ হিসেবে। জাতীয় নির্বাচকরাও একইভাবে ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং কোচ হিসেবে তিনজন করে বেছে নিলেন। 
ব্যাটিং বিভাগে বিক্রম রাঠোরকে বেছে নেওয়া হল এক নম্বর হিসেবে। দুই নম্বরে থাকলেন এখনকার ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গার এবং তিন নম্বরে প্রাক্তন ইংল্যান্ড ব্যাটসম্যান রামপ্রকাশ। 
বোলিং বিভাগে ভরত অরুণ থেকে গেলেন এক নম্বরেই। এখানেও বেছে নেওয়া হল আরও দু’‌জনকে। ফিল্ডিং কোচ হিসেবে শ্রীধর থেকে গেলেন। নির্বাচকদের পছন্দের তালিকায় থাকলেন অবশ্য আরও দু’‌জন ফিল্ডিং কোচ। অর্থাৎ বিক্রম রাঠোর হলেন নতুন ব্যাটিং কোচ। ভরত অরুণ এবং শ্রীধর বিরাটদের দলে ছিলেন যথাক্রমে বোলিং ও ফিল্ডিং কোচ হিসেবে। দু’‌জনেই থেকে গেলেন। অর্থাৎ বিশ্বকাপে ভারতের যে প্রশিক্ষকরা ছিলেন, তাঁদের মধ্যে থেকে বাদ গেলেন শুধুমাত্র সঞ্জয় বাঙ্গার। যেমন ক্রিকেটারদের মধ্যে বাদ গিয়েছেন শুধুই দীনেশ কার্তিক। আমরা কি ধরে নেব, বাঙ্গার আর কার্তিকের কারণেই বিশ্বকাপ ফাইনালে উঠতে পারেনি ভারত?‌  ‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top