সংবাদ সংস্থা, নিউ ইয়র্ক: তিনি লড়েছেন, তিনি জিতেছেন। এটা ভেবেই দারুণ তৃপ্ত রাফায়েল নাদাল। রবিবার প্রায় পাঁচ ঘণ্টার মহাকাব্যিক লড়াইয়ের পর জিতেছেন ইউ এস ওপেন খেতাব। কঠিন জয় ছিনিয়ে নেওয়ার পর স্পেনিয়ার্ড বলছেন, ‘‌কঠিন মুহূর্তগুলো যেভাবে পেরিয়ে গিয়েছি, তা ভেবেই আমি অত্যন্ত তৃপ্ত।
১৯ নম্বর গ্র‌্যান্ড স্লাম জেতার পর খুব স্বাভাবিকভাবেই শুরু হয়ে গিয়েছে আলোচনা। এবার কি তাঁর লক্ষ্য রজার ফেডেরারকে (‌যাঁর গ্র‌্যান্ড স্লাম খেতাব ২০টি)‌ ছাপিয়ে যাওয়া?‌ নাদাল উত্তর দিয়েছেন, ‘‌আরও খেতাব জিততে পারলে ভালই লাগবে। কিন্তু আমি শুধু এই কারণেই টেনিস খেলি না। আমি খেলি, কারণ টেনিস খুব ভালবাসি। ক’‌টা গ্র‌্যান্ড স্লাম হল, মোটেই তা নিয়ে ভাবি না। টেনিস হল গ্র‌্যান্ড স্লামের থেকেও বেশি। খেলতে পারলেই আমি বেশি খুশি হই। ইউ এস ওপেন জিতে নিশ্চয়ই খুশি হয়েছি। কিন্তু কয়েক সপ্তাহ আগে মন্ট্রিল ওপেন জিতেও খুব খুশি হয়েছিলাম। সেটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্ত ছিল আমার কাছে।’‌
এখনও বিশ্ব টেনিস বুঁদ ফেডেরার–নাদাল–জকোভিচে। বছরের পর বছর কেটে গিয়েছে, তাঁদের লড়াই থামছেই না। এই প্রতিদ্বন্দ্বিতাকে ‘‌ভাল’ বলেই আখ্যা দিয়েছেন ‌নাদাল। তিনি বলেছেন, ‘‌এই ব্যাপারটা যদি সমর্থকদের আকর্ষণ করে, সেটা তো টেনিসের জন্য ভালই। তাই না?‌ এই লড়াইয়ের অংশ হিসেবে আমিও রয়েছি, এটা ভেবেই সম্মানিত বোধ করছি।’‌ নাদালের সংযোজন, ‘‌যে স্বপ্ন দেখেছি, যা ভেবেছি, কেরিয়ারে তার থেকে অর্জন করেছি অনেক বেশি।’‌ 
চলতি বছরে দুটি গ্র‌্যান্ড স্লাম জিতেছেন। নাদালের সামনে সুযোগ আছে বিশ্বের একনম্বর হয়ে বছর শেষ করার। যা নিয়ে তিনি বলেছেন, ‘‌এটা ভেবে লড়ছি না। যদি একনম্বর হয়ে যাই, দারুণ হবে। শুধু চাই খেলার জন্য নিজেকে তৈরি রাখতে। কিন্তু একনম্বর হওয়ার জন্য নিজের এনার্জি এবং সময় নষ্ট করব না। আমার মূল লক্ষ্যই হল যতদিন পর্যন্ত সম্ভব খেলে যাওয়া।’

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top