আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মেক্সিকোর দ্বিতীয় ডিভিশনের ক্লাব ডোরাডোসের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। কিন্তু কেন?‌ কেনই বা ড্রাগ পাচারকারীদের রমরমা যেখানে, সেই জায়গার ক্লাবের দায়িত্ব নিতে গেলেন মারাদোনা?‌ প্রশ্নগুলো উঁকি দিচ্ছিল তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই। অবশেষে উত্তর দিলেন দিয়েগো মারাদোনা। সাংবাদিকদের সামনে মারাদোনা বলেছেন, ‘‌আমি পুনর্জন্মের কামনায় মেক্সিকোর ডোরাডোস ক্লাবের দায়িত্ব নিয়েছি’‌। তার মানে?‌ দীর্ঘদিন ড্রাগের নেশায় আসক্ত ছিলেন ফুটবল রাজপুত্র। অতীতের সেই অধ্যায় অস্বীকার কখনও করেননি। করলেন না এবারও। মারাদোনা নিজের কথার সপক্ষে যুক্তি দেখিয়েছেন, ‘‌যখন অসুস্থ ছিলাম, যা যা হারিয়েছি ডোরাডোসকে সবকিছু দিতে চাই। ১৪ বছর অসুস্থ ছিলাম!‌ এবার সূর্যের দিকে তাকাতে চাই। রাতে বিছানায় নিশ্চিন্তে ঘুমোতে যেতেও চাই। জানেন, আমি না ঘুম ব্যাপারটা কী, সেটাই ভুলে গেছিলাম!‌ বালিশ বস্তুটা যে আদতে কী, সেটাও জানতাম না। কিন্তু এখন স্বাভাবিক সবকিছু ফিরে পেতে চাই। তাই ডোরাডোসের প্রস্তাব গ্রহণ করেছি।’‌ মেক্সিকোতে একাই দেশকে দিয়েছিলেন বিশ্বকাপ। কিন্তু সেই মেক্সিকোর দ্বিতীয় ডিভিশনের এক অখ্যাত ক্লাবের দায়িত্ব নেওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যঙ্গ করে বলা শুরু হয়, মারাদোনা আসলে ড্রাগের রমরমার শহরে ইচ্ছে করেই ফিরতে চাইছেন। কিন্তু সেই বাঁকা কথায় কান দিচ্ছেন না ফুটবল রাজপুত্র। বলেছেন, ‘‌এই মুহূর্তটাই জীবনের সেরা মুহূর্ত। ডোরাডোসে অনেক দিন থাকতে চাই। জানি, লোকে অনেক কথা বলছে। সে বলুক। এক সময় আমি খাদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলাম। নিজেই নিজেকে ধ্বংস করছিলাম। যা করছিলাম, সেটাকে ক্রমশই পিছিয়ে যাওয়া বলে। কিন্তু ফুটবলের সঙ্গে জুড়ে থাকা মানে সামনের দিকে এগোনো। যা যা পরিবর্তন আমার জীবনে ঘটেছে, তা শুধুই আমার মেয়েদের জন্য।’‌ ‌‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top